ম্যাচ শেষে ড্রেসিংরুমে কেঁদেছিলেন মেসি

নিউজ ডেস্ক : দামি গাড়ি, মোটা ব্যাংক–ব্যালেন্স, বিশাল সমর্থক গোষ্ঠী। বিশ্বমানের ফুটবলার হতে পারলে সবকিছুই পায়ের নিচে এসে ধরা দেয়। কত চাকচিক্যময় জীবন। কিন্তু এর জন্য যে কত ত্যাগ, কত কষ্ট। সে খবর কি সমর্থকেরা রাখি? অনেকে তো ভুলেও যায়, ফুটবলাররাও মানুষ। কজন জানেন, পেনাল্টি মিস করে শিরোপা–স্বপ্ন শেষ হওয়ায় কেঁদেছিলেন মেসি!

জানুয়ারির দলবদলে আর্সেনাল থেকে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডে যোগ দিয়েছেন আলেক্সিজ সানচেজ। ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগের রেকর্ড বেতন পাচ্ছেন সানচেজ। পল পগবাকে টপকে চিলিয়ান এই ফরোয়ার্ডই এখন ইংলিশ লিগের সর্বোচ্চ পারিশ্রমিকধারী খেলোয়াড়। তবু মন খারাপ তাঁর।

এই নিয়েই শুরু হয়েছে কটু কথা। তাই দুঃখ নিয়ে সানচেজ বলেছেন, ‘ফুটবল আমাদের আনন্দময় জীবন দিতে পারে। কিন্তু কেউ পেছনের দৃশ্যটা দেখে না। ফুটবলের জন্য আমরা পরিবারকে মিস করি, মায়ের জন্মদিনে পাশে থাকতে পারি না। ছেলের জন্মদিনেও পাশে থাকা হয় না।’

এই পর্যন্তই থামেননি সাবেক বার্সেলোনা ফরোয়ার্ড। অনেক দর্শক ফুটবলারদের মানুষই মনে করে না। তাই প্রায় অর্ধযুগ আগে চ্যাম্পিয়নস লিগে চেলসির বিপক্ষে বার্সেলোনার হেরে যাওয়া ম্যাচে মেসির কান্নার প্রসঙ্গ টেনে এনেছেন সানচেজ, ‘খেলায় হেরে গেলে ফুটবলারেরা কাঁদে। এটাই ফুটবলের অংশ। আমি ড্রেসিংরুমে দেখেছি মেসিকে কাঁদতে। মানুষের অনেক প্রত্যাশা খেলোয়াড়দের ওপর। বাইরে থেকে এটা বোঝা যায় না।’

২০১২ সালে চ্যাম্পিয়নস লিগের সেমিফাইনালে দুই লেগ মিলিয়ে ২-৩ গোলে হেরেছিল বার্সেলোনা। দ্বিতীয় লেগে ২-০ গোলে এগিয়ে থাকা ম্যাচে ২-২ গোলে সমতায় ফিরে চেলসি। সে ম্যাচের অন্তিম মুহূর্তে পেনাল্টি মিস করেছিলেন মেসি। ১০ জনের চেলসিকেও হারাতে পারেনি বার্সেলোনা। তাই ম্যাচ শেষে ড্রেসিংরুমে কেঁদেছিলেন মেসি।

খাওয়া ছাড়া অন্য কোনো কাজ পারে না আর্জেন্টিনা কোচ: ম্যারাডোনা

স্পোর্টস ডেস্ক: আর্জেন্টাইন কিংবদন্তি ডিয়াগো ম্যারাডোনা আজীবনই উচিত কথা বলতে ছাড়েননি। এবারও নিজ দেশ আর্জেন্টিনা জাতীয় ফুটবল দলের অবস্থা নিয়ে তোপ দাগলেন তিনি। আগেও একাধিকবার বলেছিলেন, এই দলটি ভুল কোচ, ভুল নির্বাচকদের অধীনে পরিচালিত হচ্ছে। এবার বললেন, একমাত্র মেসি ছাড়া ফুটবল বিশ্বে সম্মান হারিয়েছে আর্জেন্টিনার জাতীয় দল। এমনকী তিনি কোচ হোর্হে সাম্পাওলিকে অকর্মণ্যও বলেছেন।

আর্জেন্টিনার প্রভাবশালী দৈনিক দিয়ারিও পপুলার কে দেওয়া সাম্প্রতিক এক সাক্ষাতকারে ‘হ্যান্ডস অব গড’ খ্যাত এই ফুটবলার বলেছেন, ‘বিশ্ব ফুটবলে সম্মান হারিয়েছে আর্জেন্টিনা। আমার খারাপ লাগে যে আজ আর্জেন্টিনাকে সম্মান করা খুব কঠিন হয়ে পড়েছে। কেননা কেউই তাদের ভয় পায় না। গত ম্যাচে তো আমরা নাইজেরিয়ার বিপক্ষেও ৮ গোল খেতে বসেছিলাম। দলের মধ্য মেসিই একমাত্র ব্যতিক্রম। ওকে বাদ দিলে এই দলটি সম্মান পাওয়ার যোগ্য নয়।’

বাছাইপর্বের একের পর এক ম্যাচে ব্যর্থতার কারণে ২০১৮ রাশিয়া বিশ্বকাপের মূলপর্বে ওঠাই দায় হয়ে গিয়েছিল হোর্হে সাম্পাওলির দল আর্জেন্টিনার জন্য। শেষ পর্যন্ত ইকুয়েডরের বিপক্ষে হ্যাটট্রিক করে দলকে বিশ্বকাপের মঞ্চে পৌঁছে দেন লিওনেল মেসি। তারপরও নাইজেরিয়ার মত দলের কাছে সর্বশেষ চারটি গোল হজম করেছে সাম্পাওলির শিষ্যরা। তাই রাশিয়া বিশ্বকাপের আগে এই দল নিয়ে বেজায় চটেছেন ম্যারাডোনা।

ম্যারাডোনা মনে করেন ফরোয়ার্ড নির্বাচনে পুরোপুরি অদক্ষতার পরিচয় দিচ্ছেন কোচ হোর্হে সাম্পাওলি। তার ভাষায়, ‘বিশ্বকাপের জন্য মাওরো ইকার্দির উপর ভরসা করা খুবই অস্বস্তিকর। হিগুয়েন তার চেয়ে দশ গুণ ভালো। এটা পরিষ্কার যে, এই সাম্পাওলি কিছুই জানে না। সে শুধু জানে, বন্ধুদের বাসায় বসে কী কী খাওয়া যেতে পারে! না হলে কার্লোস তেভেজের দুর্দান্ত সামর্থ্য থাকা সত্ত্বেও ৯ নাম্বার নিয়ে ভুগতে হবে কেন দলকে?’

এ কেমন মজা নেইমারের ?

স্পোর্টস ডেস্ক : রেনের সঙ্গে প্যারিস সেন্ট জার্মেইয়ের (পিএসজি) ম্যাচটি উত্তেজনা ছড়িয়েছে মাঠে। ৩-২ গোলের হাড্ডাহাড্ডি লড়াই শেষে লিগ ওয়ানের ফাইনালে নাম লিখিয়েছে পিএসজি। তবে এই লড়াই নিয়ে নয়, ম্যাচ শেষে আলোচনা হচ্ছে অন্য এক বিষয় নিয়ে। জয়ী দলে থেকেও যে বিতর্কে জড়িয়েছেন নেইমার।

বিতর্ক জন্ম দেয়া নেইমারের জন্য নতুন কিছু নয়। ব্রাজিলিয়ান সুপারস্টার এবার মাঠে অখেলোয়াড়সুলভ এক কান্ড ঘটিয়ে আলোচনায় এসেছেন। যা নিয়ে সমালোচনা হচ্ছে ফুটবল বিশ্ব জুড়ে।

খেলার এক পর্যায়ে মাটিতে পড়ে গিয়েছিলেন রেনের হামারি ট্রাউরি। ফুটবল ম্যাচে এমন সময়ে প্রতিপক্ষ খেলোয়াড়রা অনেক সময় হাত বাড়িয়ে টেনে তুলেন অপর পক্ষের খেলোয়াড়কে। স্বাভাবিক এই বিষয়টিই ঘটতে যাচ্ছে, মনে করেছিলেন হামারি।

কিন্তু নেইমার কি করলেন? এ কেমন মজা নেইমারের ? তার বাড়িয়ে দেয়া হাত ধরে হামারি উঠতে গেলে সেটা সরিয়ে নিলেন অন্য দিকে। যেটা নিয়ে ম্যাচ শেষে ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করেছে রেনে শিবির।

নেইমার অবশ্য অনুতপ্ত হওয়ার ধারও ধারলেন না। ম্যাচশেষে তিনি বললেন, এটা নাকি নিছক মজা ছিল, ‘ফুটবলটা তো এখন বেশ বোরিং হয়ে গেছে। কেননা আমরা কিছুই করছি না। যা করা যায়, তা নিয়েই বিতর্ক। উদাহরণস্বরুপ দেখুন, আমি হাত বাড়িয়ে সেটা পরে গুটিয়ে নিয়ে মজা করলাম। এটা নিয়ে বিতর্ক শুরু হয়ে গেল। আমি তো এটা বন্ধুদের সঙ্গেও করি। তবে কেন প্রতিপক্ষের সঙ্গে করতে পারব না?’

প্রতিপক্ষও মাঠে তাকে নিয়ে কটাক্ষ করছিল, তাই জবাবটা এভাবে দিয়েছেন; দাবি নেইমারের। পিএসজি তারকা বলেন, ‘তারা আমাকে আঘাত করে থামাতে চেয়েছিল। আমি চেয়েছিলাম ফুটবল খেলতে। তারা আমাকে তিরস্কার করে। আমিও জানি কিভাবে তিরস্কার করতে হয়।

সেটা আমি নিজের মতো করেই করি, বল আর ফুটবল দিয়ে। আমি কোনো ডিফেন্ডারকে সাহায্য করব না, যদি তারা আমাকে তিরস্কার করে। বরং আমিও তাদের তিরস্কার করব।’

অবশেষে বার্সায় যোগ দিলেন মাশচেরোনার বিকল্প

স্পোর্টস ডেস্ক: কোতিনহোকে কিনে বেশ বিপদেই পড়তে হলো স্প্যানিশ জায়েন্ট বার্সাকে। কারণ কোতিনহোকে কিনতে গিয়ে নিজেদের অ্যাকাউন্টের অনেক টাকাই শেষ করতে হলো। আর সেই হিসেব জেড়েই তাদের দলের বেশিরভাগ খেলোয়ারদেরকেই বিক্রি করে দিতে হবে। আর সেই তালিকায় আছেন মাশচেরানো। আর আর্জেন্টাইন এই তারকাকে বিক্রি করার আগে তার বিকল্পকে দলে ভিড়িয়েছে বার্সা।

আর তার বিকল্প হিসেবে আসছে ইয়েরি মিনার। ইয়েরি মিনার সঙ্গে চুক্তির বিষয়টি আনুষ্ঠানিকভাবে ঘোষণা দিলো বার্সেলোনা। নিজেদের ওয়েবসাইটে এ সংক্রান্ত একটি বিবৃতি দিয়েছে ক্লাবটি।
১১.৮ মিলিয়ন ইউরোতে ব্রাজিলিয়ান ক্লাব পালমেইরাস থেকে আনা হয়েছে এ ডিফেন্ডারকে। আর তাঁর বাই-আউট ক্লস ধরা হয়েছে ১০০ মিলিয়ন ইউরো।

স্প্যানিশ ক্রীড়া দৈনিক মার্কার প্রতিবেদন অনুযায়ী, দলে জাভিয়ের মাশচেরানোর বিকল্প হবেন কলম্বিয়ান এ সেন্টারব্যাক। আর চীনের ক্লাব হেবেই চাইনা ফরচুনে যোগ দেয়ার কথা মাশচেরানোর।

সাড়ে পাঁচ বছরের চুক্তিতে ন্যু ক্যাম্পে যোগ দিলেন মিনা। সে হিসেবে ২০২৩ সাল পর্যন্ত বার্সাতেই থাকার কথা ২৩ বছর বয়সী এ ফুটবলারের। ২০১৬ সালে পালমেইরাসে যোগ দেয়ার পর ৩৩ ম্যাচে মাঠে নেমেছেন মিনা। ওই বছরই জিতেছেন লিগ কাপ। এরআগে সান্টা ফে’র হয়ে জিতেছে কোপা সুদামেরিকানা।

এই প্রথমবার ঢাকা শহরে আয়োজন হবে ব্রাজিল ফ্যানদের মিলনমেলা!

স্পোর্টস ডেস্ক: ফুটবল বিষয়টাই বাংলাদেশের মানুষের মধ্যে একটা ক্রেইজ হিসেবে কাজ করে। ব্যাপারটা ফুটবল বিশ্বকাপ চলাকালীন সময়ে বাংলাদেশের চেহারাটা দেখলেই স্পষ্ট হয়ে যায়।

এই ফুটবল ফ্যানদেরই একটি কমিউনিটি “Brazil Fans Official Group Of Bangladesh”. ফেসবুকে বাংলাদেশি ব্রাজিল ফ্যানদের সবচেয়ে বড় ও পপুলার প্লাটফর্ম। আর এই Brazil Fans Official Group Of Bangladesh এর পক্ষ হতেই আয়োজিত হতে যাচ্ছে এই প্রথমবারের মত প্রাণের শহর ঢাকাতে গ্র্যান্ড গেট-টুগেদার ও ব্রাজিল ফ্যানদের মিলনমেলা’র!

এর আগে চট্টগ্রাম ও কুমিল্লাতে সফলভাবে ব্রাজিল ফ্যানদের মিলনমেলার আয়োজন করেছে গ্রুপটি। আপনি যদি ব্রাজিলের সমর্থক হয়ে থাকেন তাহলে আগামী ৯ ফেব্রুয়ারি রোজ শুক্রবার যোগ দিন এই বিশাল ব্রাজিল ফ্যানদের মিলনমেলায়। আয়োজন দুপুর ২টা থেকে ৫ টা। স্থান-তেজপাতা রেস্টুরেন্ট, ৯১, বীর উত্তম সিআর দত্ত রোড, সোনারগাঁও হোটেল রোড, বাংলামটর, ঢাকা।

মেসি-সুয়ারেসের গোলে দুর্দান্ত জয় তুলে নিল বার্সেলোনা

লা লিগায় আরেকটি মাইলফলক ছোঁয়ার ম্যাচে জ্বলে উঠলেন লিওনেল মেসি। জালের দেখা পেলেন লুইস সুয়ারেসও। দুর্বল লেভান্তের বিপক্ষে বার্সেলোনা পেল প্রত্যাশিত সহজ জয়।

রোববার কাম্প নউয়ে স্থানীয় সময় বিকালে শুরু হওয়া ম্যাচে ৩-০ গোলে জিতেছে বার্সেলোনা। অন্য গোলটি পাওলিনিয়োর।

সাড়ে তিন মাসের বেশি সময় চোটের কারণে বাইরে থাকার পর প্রথম শুরুর একাদশে সুযোগ পাওয়া উসমান দেম্বেলে গোল না পেলেও ম্বরূপে ফেরার আভাস দিয়েছেন। ৬৭তম মিনিটে তাকে তুলে নেন কোচ।

পয়েন্ট টেবিলের নিচের দিকের দল লেভান্তের বিপক্ষে ম্যাচের শুরুর দিকেই গোল পেয়ে যায় বার্সেলোনা। দ্বাদশ মিনিটে জর্দি আলবাকে বল বাড়িয়ে দ্রুত ডি-বক্সে ঢুকে সতীর্থের হেডে ফিরতি বল পেয়ে হাফ-ভলিতে লক্ষ্যভেদ করেন মেসি। বল পোস্টের ভিতরের দিকে লেগে জালে জড়ায়।

এবারের লিগে এ নিয়ে সর্বোচ্চ ১৬ গোল করলেন মেসি। লা লিগায় বার্সেলোনার জার্সিতে ৪০০ ম্যাচ খেলে ৩৬৫ গোল করলেন আর্জেন্টিনা অধিনায়ক।

খানিক পরেই ব্যবধান দ্বিগুণ হতে পারতো; কিন্তু দেম্বেলের শট গোলমুখে প্রতিহত হয়। ২৫তম মিনিটে চোট কাটিয়ে ফেরা ফরাসি এই ফরোয়ার্ডের আরেকটি দারুণ শট ঝাঁপিয়ে ঠেকান গোলরক্ষক। আলগা বল ফাঁকায় পেয়ে সুয়ারেসের শট ক্রসবারের একটু উপর দিয়ে যায়।

৩৮তম মিনিটে অতর্কিত এক আক্রমণে ব্যবধান দ্বিগুণ করে স্বাগতিকরা। মাঝমাঠ থেকে পাওলিনিয়োর উঁচু লম্বা শটে বল ডান দিকে পেয়ে প্রথম ছোঁয়ায় ডি-বক্সে বাড়ান সের্হিও রবের্তো। আর বল বাঁ পায়ে নিয়ন্ত্রণে নিয়ে ডান পায়ের জোরালো শটে এবারের লিগে নিজের একাদশ গোলটি করেন সুয়ারেস।

দ্বিতীয়ার্ধের প্রথম মিনিটে মার্ক-আন্ড্রে টের স্টেগেনের পরীক্ষা নেন ইভি লোপেস। ডি-বক্সের বাইরে থেকে স্প্যানিশ এই ফরোয়ার্ডের জোরালো শট ঝাঁপিয়ে ঠেকান বার্সেলোনা গোলরক্ষক।

৭২তম মিনিটে অফসাইডের ফাঁদ ভেঙে ডি-বক্সে ঢুকে সুয়ারেসের নেওয়া প্রথম শট রক্ষণে প্রতিহত হওয়ার পর ফিরতি বলে তার দ্বিতীয় শট কর্নারের বিনিময়ে ঠেকান গোলরক্ষক।

যোগ করা সময়ে ডি-বক্সের মধ্যে এক জনকে কাটিয়ে আরেক জনের বাধা এড়িয়ে ছয় গজ বক্সের মুখে বল বাড়ান মেসি। তা পেয়ে অনায়াসে দলের তৃতীয় গোলটি করেন ব্রাজিলিয়ান মিডফিল্ডার পাওলিনিয়ো।

১৮ ম্যাচে ১৫ জয় ও তিন ড্রয়ে শীর্ষে থাকা বার্সেলোনার পয়েন্ট হলো ৪৮। ৯ পয়েন্ট কম নিয়ে দ্বিতীয় স্থানে আতলেতিকো মাদ্রিদ।

দেখুন বার্সায় যোগ দেয়া কৌতিনহোর অজানা ১০ তথ্য

বার্সেলোনায় যোগ দিয়েছেন ব্রাজিলিয়ান তারকা কৌতিনহো। এটা নিশ্চিত হয়েছে গতকাল। আর বার্সেলোনা তাদের ওয়েবসাইটে প্রকাশ করেছে তার সর্ম্পকে অজানা ১০টি তথ্য। এক নজরে দেখা যাক কি সে তথ্য যা আমরা আগে জানতাম না।

১.কৌতিনহোই বার্সার একমাত্র খেলোয়াড় যার জন্ম “পোস্ট-ওয়েম্বলি”। তার জন্ম ১৯৯২ সালের ১২ জুন,রিও ডি জেনিরোতে। বার্সেলোনা ওয়েম্বলিতে ঐতিহাসিক ইউরোপিয়ান কাপ জেতার মাত্র ২৪ দিনের মাথায় তার জন্ম। বার্সায় খেলা তৃতীয় খেলোয়াড় হলো কৌতিনহো যাদের সবার জন্ম ১৯৯২ সালে,বাকি দুজন হলেন সার্জিও রবার্তো এবং জার্মানির আন্দ্রে স্টেঞ্জ।

২.কৌতিনহো গোল সংখ্যা ৭৭। তার প্রফেশনাল ফুটবল ক্যারিয়ারে সব মিলিয়ে ৭৭টি গোল করেন ৩৩৭ ম্যাচে। যার মধ্যে ক্লাবে ৩০৫ ম্যাচ আর জাতীয় দলের হয়ে ৩২ ম্যাচে অংশগ্রহণ করেন।

৩.প্রিমিয়ার লিগে (১৬/১৭) মৌসুমে পেনাল্টি এরিয়ার বাইরে থেকে সবচেয়ে বেশি গোল করেন তিনি। ব্রাজিলিয়ান তারকা ৬টি গোল করেন,যার মধ্যে ৩টি সরাসরি ফ্রি-কিক থেকে গোল করেন।

৪.পুরনো বন্ধুর সাথে আবার এক সাথে। এক সময় লুইজ সুয়ারেজ এর সাথে ড্রেসিং রুম ভাগাভাগি করেছিলেন কৌতিনহো। আবার তার সাথে দেখা হলো। তাছাড়া নিজ দেশের পাওলিনহো এবং রাফিনহাকে পাবে বার্সেলোনাতে।

৫.কৌতিনহো এখন পর্যন্ত ১৫ জন ভিন্ন ভিন্ন কোচের অধীনে খেলেছেন। তার এ বয়সে কোচের সংখ্যাটা মনে হয় একটু বেশি হয়ে গেছে।

৬.ব্রাজিলিয়ান তারকা একটি ন্যু-ক্যাম্পে ম্যাচ খেলেছেন। যেখানে তার দল বার্সার কাছে ৪-০ তে পরাজিত হয়। সে ম্যাচে কৌতিনহো বদলি ৫৬তম মিনিটে বদলি হিসেবে খেলতে নামে।

৭.বার্সার বিপরীতে দ্বিতীয়বার তার খেলা হয় লিভারপুলের হয়ে ওয়েম্বলিতে। ওই দিন ওয়েম্বলির এ মাঠে দ্বিতীয় সর্বোচ্চে দর্শক সমাগম হয়। যেখানে বার্সেলোনা ৪-০ তে লিভারপুলের কাছে হারের স্বাদ নেয়। ওই ম্যাচেও বদলি হিসেবে খেলতে নামেন কৌতিনহো।

৮.পরীক্ষা! তার জন্য কয়েকটি পরীক্ষা ছিল তাতে সে উতরে যায়। যার মধ্যে রয়েছে তার অনূর্ধ্ব-২০ বিশ্বকাপ,কোপা ইতালিয়া,এফএ কাপ,ইতালিয়ান সুপার কাপ। যার সবগুলোই সে জিতেছে। যাতে বলা হয়েছিল এগুলো সে জিতবে না।

৯.কৌতিনহো দুবার লিভারপুলের হয়ে বর্ষসেরা হয়েছিলেন। ‍তাছাড়া এই ব্রাজিলিয়ান প্রিমিয়ার লিগে ১৪/১৫ মৌসুমে সেরা একাদশেও ছিল।

১০.কৌতিনহোকে বলা হয় পারিবারিক মানুষ। পরিবারকে তিনি খুবই ভালবাসেন। তার পরিবারের প্রতি ভালবাসার জন্য তিনি একটি ট্যাটু ও আঁকেন।

এই ছিল বার্সার দেওয়া কৌতিনহোর ১০টি তথ্য।

তাহলে কী হিসাব না দিয়েই বার্সা ছাড়বেন মেসি?



স্পোর্টস ডেস্ক: সব জল্পনা-কল্পনার অবসান ঘটিয়ে গত নভেম্বরে লিওনেল মেসির সঙ্গে চুক্তি নবায়ন করে বার্সেলোনা। নতুন চুক্তি অনুযায়ী, স্প্যানিশ ক্লাবটি তার বাই-আউট ক্লজ নির্ধারণ করে ৭০০ মিলিয়ন ইউরো। সেই হিসাবে বর্তমানে বিশ্বের সবচেয়ে দামি ফুটবলার এ খুদে জাদুকর।

নতুন চুক্তি মোতাবেক, ২০২১ সাল পর্যন্ত ন্যু ক্যাম্পে থাকবেন মেসি। তবে এর মধ্যে বার্সেলোনা স্বাধীনতা পেলে সেখানে তার থাকা নিয়ে সৃষ্টি হতে পারে ঝামেলা। কারণ স্প্যানিশ লা লিগায় খেলা নিয়ে শঙ্কায় পড়বে ক্লাবটি। এতে বসে থাকতেও হতে পারে ফুটবলের বরপুত্রকে।

তবে মেসির জন্য সব রকম পথ খোলা রাখছে বার্সা। এ রকমটি ঘটলে কর্তৃপক্ষকে কোনো হিসাব-নিকাশ না দিয়েই যে কোনো মুহূর্তে ক্লাবটি ছাড়তে পারবেন তিনি। সম্প্রতি আর্জেন্টাইন যুবরাজের সঙ্গে চুক্তিতে এ বিষয়টিও ঢুকিয়ে দিয়েছেন কাতালানরা।

স্প্যানিশ সংবাদমাধ্যম এল মুন্ডো জানাচ্ছে, নিজ থেকেই এ দাবি জানিয়েছিলেন মেসি। পরিবেশ-পরিস্থিতি বিবেচনায় তাতে সম্মতি জানিয়েছে বার্সা। এখন কাতালানরা স্বাধীন হলে লা লিগায় বার্সার খেলার ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ হলেও সমস্যা নেই পাঁচবারের বর্ষসেরার। তাৎক্ষণিকভাবে ইংল্যান্ড, জার্মানি, ফ্রান্স, ইতালির ক্লাবে খেলতে পাড়ি জমাতে পারবেন ওয়ান্ডারম্যান।

স্পেনের বর্তমান আইন অনুযায়ী, স্বাধীনতা পেলেই লা লিগা থেকে বহিষ্কৃত হবে বার্সা।

আগে রোনালদোকে বিক্রি করুন, তারপর আমার কাছে আসুন, রিয়ালকে নেইমার



স্পোর্টস ডেস্ক: নেইমারকে ডেরায় ভেড়াতে দীর্ঘদিন ধরে চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে রিয়াল মাদ্রিদ। কিন্তু বারবারই ব্যর্থ হয়েছে ক্লাবটি। নতুন বছরের শুরুতে সরগরম হয়ে উঠেছে ইউরোপিয়ান দলবদলের মার্কেট। এবার আর তাকে হাতছাড়া করতে চাচ্ছেন না লস ব্লাঙ্কোজরা।

শোনা যাচ্ছে, দলে টানতে এরই মধ্যে ব্রাজিল ফরোয়ার্ডের সঙ্গে যোগাযোগ করেছে রিয়াল। তবে এবারও হাত ফসকে যেতে পারে ক্লাবটির। কারণ তাকে দলে নিতে কঠিন শর্ত জুড়ে দিয়েছেন ব্রাজিল যুবরাজ। নেইমারের ভাষ্য, ‘আগে ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদোকে বিক্রি করুন। তার পর আমার কাছে আসুন।’

গত আগস্টে ট্রান্সফার ফির বিশ্বরেকর্ড গড়ে (২২২ মিলিয়ন ইউরো) বার্সেলোনা ছেড়ে পিএসজিতে যান নেইমার। কানে এসেছে- এর চেয়েও বেশি দামে তাকে কিনতে দেনদরবার চালিয়ে যাচ্ছে রিয়াল।

তবে এতে বাধা হয়ে দাঁড়িয়েছে নেইমারের শর্ত। সরাসরি নাকি জানিয়ে দিয়েছেন, রোনাল্ডো থাকলে সান্তিয়াগো বার্নাব্যুতে আসবেন না তিনি। স্প্যানিশ সংবাদমাধ্যম দিয়ারিও গোল জানাচ্ছে, বিষয়টি আমলে নিয়েছেন রিয়াল প্রেসিডেন্ট ফ্লোরেন্তিনো পেরেজ। নেইমারকে পেতে দরকারে রোলল্ডোকে বিক্রি করে দেবেন তারা। এই মাসেই তা সম্পন্ন হতে পারে।

সময়টা ভালো যাচ্ছে না ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডোর। গোলখরায় ভুগছেন তিনি। চলতি মৌসুমে লা লিগায় করেছেন মাত্র ৪ গোল। এতে লা লিগা পয়েন্ট টেবিলে চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী বার্সেলোনার চেয়ে যোজন যোজন পিছিয়ে পড়েছে রিয়াল। তথ্য সূত্র : ডেইলিস্টারডটইউকে

ঢাকায় এক বিদেশি ফুটবলারের মৃত্যু



স্পোর্টস ডেস্ক: রাজধানীতে এক লাইবেরিয়ান ফুটবলারের মৃত্যু হয়েছে। তাঁর নাম বালাক (৩৪)। তিনি চট্টগ্রাম মোহামেডানের হয়ে খেলতেন।

পুলিশ জানিয়েছে, গতকাল বুধবার রাতে গুরুতর অসুস্থ অবস্থায় বালাককে ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে নিয়ে এলে রাত ১টার দিকে চিকিৎসক তাঁকে মৃত ঘোষণা করেন।

প্রাথমিকভাবে চিকিৎসকদের ধারণা, বালাক হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন।

রামপুরা থানার উপপরিদর্শক (এসআই) নজরুল ইসলাম রাতে হাসপাতালে গণমাধ্যমকে জানান, বালাক রাজধানীর রামপুরায় মহানগর প্রজেক্টের ৩ নম্বর রোডের শফিকুল ইসলামের বাড়ির নিচতলার ভাড়াটিয়া ছিলেন।

শফিকুল ইসলামের বাড়ির নিরাপত্তারক্ষীর বরাত দিয়ে এসআই আরো জানান, বালাক বেশ কয়েক দিন ধরে অসুস্থ ছিলেন। এ ছাড়া কিডনিসহ নানা রোগে আক্রান্ত ছিলেন।

বালাকের মৃত্যুর বিষয়টি খতিয়ে দেখা হচ্ছে। ময়নাতদন্তের জন্য লাশ মর্গে রাখা হয়েছে। প্রতিবেদন পেলে মৃত্যুর প্রকৃত কারণ জানা যাবে বলে জানান এসআই।