হার্দিকের কারণে একাদশে জায়গা পাচ্ছেন না মোস্তাফিজুর রহমান : জহির খান

চলতি মৌসুমে মুম্বাইয়ের হয়ে প্রথম ছয় ম্যাচে মাঠে নামেন মোস্তাফিজ। বল হাতে প্রায় প্রতি মাচেই ছিলেন দুর্দান্ত। টাইগার এই পেসার দুর্দান্ত পারফর্মেন্স করলেও তবে তার দল হারের বৃত্ত থেকে বের হতে পারছিল না। শঙ্কায় পরে দলটির কোয়ালিফাই রাউন্ডে খেলা নিয়ে। সমীকরণ এমন দাঁড়ায় বাকি ম্যাচগুলোর মধ্যে একটিতে হারলেই শেষ হয়ে যাবে পরের রাউন্ডের স্বপ্ন।

ঠিক ওই সময় দলের একাদশে পরিবর্তন আনে মুম্বাই। মোস্তাফিজ আর পোলার্ডকে বাদ দিয়ে একাদশে নেন ডুমিনি ও কাটিংকে। এতে বদলেও যায় মুম্বাইয়ের ভাগ্য। শেষ চার ম্যাচের তিনটিতে জিতে বর্তমানে পয়েন্ট টেবিলের চারে অবস্থান করছে দলটি। স্বপ্ন দেখছে কোয়ালিফাই রাউন্ড খেলার।

তবে পোলার্ডের ফর্ম না থাকায় তার পরিবর্তে ডুমিনিকে নেয়া নিয়ে কোন সমালোচনা হচ্ছে না। কিন্তু মোস্তাফিজ ধারাবাহিক থাকার পরও কেন একাদশে নেই, এ নিয়ে ভারতের সাবেক খেলোয়াড়রাও সমালোচনায় ব্যস্ত। আকশ চোপড়া তো মুম্বাইয়ের পরিকলনা খুব বেশি কাজে আসবে না বলেও ইঙ্গিত দিয়েছেন।

এতদিন সমালোচনা করলেও এবার মোস্তাফিজকে দলে না নেয়ার কারণ জানিয়েছেন জহির খান। কলকাতার বিপক্ষে জয়ের ম্যাচে মোস্তাফিজের না থাকা নিয়ে এই পেসার বলেন, ‘হার্দিক ব্যাট আর বলে দুর্দান্ত করছে। এখন সে চার ওভার করেই বল করছে। আর হার্দিক চার ওভার করে বল করতে পারায় দলে কাটিং কে নিয়ে ব্যাটিং শক্তি বাড়াতে পারছে মুম্বাই। মূলত এর কারণেই মোস্তাফিজের মতো বোলারকে ছাড়াই খেলতে পারছে দলটি।’

চলতি মৌসুমে মুম্বাইয়ের হয়ে প্রথম ছয় ম্যাচে মাঠে নামেন মোস্তাফিজ। বল হাতে প্রায় প্রতি মাচেই ছিলেন দুর্দান্ত। টাইগার এই পেসার দুর্দান্ত পারফর্মেন্স করলেও তবে তার দল হারের বৃত্ত থেকে বের হতে পারছিল না। শঙ্কায় পরে দলটির কোয়ালিফাই রাউন্ডে খেলা নিয়ে। সমীকরণ এমন দাঁড়ায় বাকি ম্যাচগুলোর মধ্যে একটিতে হারলেই শেষ হয়ে যাবে পরের রাউন্ডের স্বপ্ন।

ঠিক ওই সময় দলের একাদশে পরিবর্তন আনে মুম্বাই। মোস্তাফিজ আর পোলার্ডকে বাদ দিয়ে একাদশে নেন ডুমিনি ও কাটিংকে। এতে বদলেও যায় মুম্বাইয়ের ভাগ্য। শেষ চার ম্যাচের তিনটিতে জিতে বর্তমানে পয়েন্ট টেবিলের চারে অবস্থান করছে দলটি। স্বপ্ন দেখছে কোয়ালিফাই রাউন্ড খেলার।

তবে পোলার্ডের ফর্ম না থাকায় তার পরিবর্তে ডুমিনিকে নেয়া নিয়ে কোন সমালোচনা হচ্ছে না। কিন্তু মোস্তাফিজ ধারাবাহিক থাকার পরও কেন একাদশে নেই, এ নিয়ে ভারতের সাবেক খেলোয়াড়রাও সমালোচনায় ব্যস্ত। আকশ চোপড়া তো মুম্বাইয়ের পরিকলনা খুব বেশি কাজে আসবে না বলেও ইঙ্গিত দিয়েছেন।

এতদিন সমালোচনা করলেও এবার মোস্তাফিজকে দলে না নেয়ার কারণ জানিয়েছেন জহির খান। কলকাতার বিপক্ষে জয়ের ম্যাচে মোস্তাফিজের না থাকা নিয়ে এই পেসার বলেন, ‘হার্দিক ব্যাট আর বলে দুর্দান্ত করছে। এখন সে চার ওভার করেই বল করছে। আর হার্দিক চার ওভার করে বল করতে পারায় দলে কাটিং কে নিয়ে ব্যাটিং শক্তি বাড়াতে পারছে মুম্বাই। মূলত এর কারণেই মোস্তাফিজের মতো বোলারকে ছাড়াই খেলতে পারছে দলটি।’

চলতি মৌসুমে মুম্বাইয়ের হয়ে প্রথম ছয় ম্যাচে মাঠে নামেন মোস্তাফিজ। বল হাতে প্রায় প্রতি মাচেই ছিলেন দুর্দান্ত। টাইগার এই পেসার দুর্দান্ত পারফর্মেন্স করলেও তবে তার দল হারের বৃত্ত থেকে বের হতে পারছিল না। শঙ্কায় পরে দলটির কোয়ালিফাই রাউন্ডে খেলা নিয়ে। সমীকরণ এমন দাঁড়ায় বাকি ম্যাচগুলোর মধ্যে একটিতে হারলেই শেষ হয়ে যাবে পরের রাউন্ডের স্বপ্ন।

ঠিক ওই সময় দলের একাদশে পরিবর্তন আনে মুম্বাই। মোস্তাফিজ আর পোলার্ডকে বাদ দিয়ে একাদশে নেন ডুমিনি ও কাটিংকে। এতে বদলেও যায় মুম্বাইয়ের ভাগ্য। শেষ চার ম্যাচের তিনটিতে জিতে বর্তমানে পয়েন্ট টেবিলের চারে অবস্থান করছে দলটি। স্বপ্ন দেখছে কোয়ালিফাই রাউন্ড খেলার।

তবে পোলার্ডের ফর্ম না থাকায় তার পরিবর্তে ডুমিনিকে নেয়া নিয়ে কোন সমালোচনা হচ্ছে না। কিন্তু মোস্তাফিজ ধারাবাহিক থাকার পরও কেন একাদশে নেই, এ নিয়ে ভারতের সাবেক খেলোয়াড়রাও সমালোচনায় ব্যস্ত। আকশ চোপড়া তো মুম্বাইয়ের পরিকলনা খুব বেশি কাজে আসবে না বলেও ইঙ্গিত দিয়েছেন।

এতদিন সমালোচনা করলেও এবার মোস্তাফিজকে দলে না নেয়ার কারণ জানিয়েছেন জহির খান। কলকাতার বিপক্ষে জয়ের ম্যাচে মোস্তাফিজের না থাকা নিয়ে এই পেসার বলেন, ‘হার্দিক ব্যাট আর বলে দুর্দান্ত করছে। এখন সে চার ওভার করেই বল করছে। আর হার্দিক চার ওভার করে বল করতে পারায় দলে কাটিং কে নিয়ে ব্যাটিং শক্তি বাড়াতে পারছে মুম্বাই। মূলত এর কারণেই মোস্তাফিজের মতো বোলারকে ছাড়াই খেলতে পারছে দলটি।’

অবশেষে জানা গেল মুস্তাফিজকে না খেলার আসল কারণ

চলতি মৌসুমে মুম্বাইয়ের হয়ে প্রথম ছয় ম্যাচে মাঠে নামেন মোস্তাফিজ। বল হাতে প্রায় প্রতি মাচেই দুর্দান্ত পারফরম্যান্স করেছেন তিনি। কিন্তু তার দল যেন হারের বৃত্ত থেকে বেরই হতে পারছিলো না। দলটির কোয়ালিফাই রাউন্ডে খেলা নিয়ে সংশয় দেখা দেয়। সমীকরণ এমন দাঁড়ায় বাকি ম্যাচগুলোর মধ্যে একটিতে হারলেই শেষ হয়ে যাবে পরের রাউন্ডে খেলার স্বপ্ন।

এই সমীকরণের সামনে পড়েই একাদশে পরিবর্তন আনে মুম্বাই। মোস্তাফিজ আর পোলার্ডকে বাদ দিয়ে একাদশে নেওয়া হয় জেপি ডুমিনি ও কাটিংকে। এতেই যেন বদলে যায় মুম্বাইয়ের ভাগ্য। শেষ চার ম্যাচের তিনটিতে জিতে বর্তমানে পয়েন্ট টেবিলের চারে অবস্থান করছে দলটি। কোয়ালিফাই রাউন্ড খেলার দরজা এখন অনেকটাই খোলা তাদের সামনে।

ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগের (আইপিএল) আগের দুই আসর খেলেছেন সানরাইজার্স হায়দ্রাবাদের হয়ে। একাদশ আসরে খেলছেন মুম্বাই ইন্ডিয়ান্সের হয়ে। ‘ম্যাচ উইনার’ না হলেও শুরুটা ভালোই হয়েছে বাংলাদেশের বাঁহাতি পেসার মোস্তাফিজুর রহমানের।

তবে হঠাৎ করেই সাইট বেঞ্চ ঠিকানা হয়ে গেছে মোস্তাফিজের। এ নিয়ে আলোচনা-সমালোচনায় মুখরিত হয়েছেন আইপিএলের ক্রিকেট বিশেষজ্ঞরা। এবার জানা গেলো মোস্তাফিজের দলের বাইরে থাকার কারণ।

ভারতের সাবেক ক্রিকেটার জহির খান চলতি আইপিএলে আছেন বিশেষজ্ঞ ও ধারাভাষ্যকারের ভূমিকায়। এর আগেও তিনি মোস্তাফিজ প্রসঙ্গে কথা বলেছেন, এবারও জানালেন কেন মুম্বাই মোস্তাফিজকে দলে নিতে পারছে না।

আইপিএলের এক বিশ্লেষণমূলক অনুষ্ঠানে জহির খান বলেন, হার্দিক ব্যাট আর বলে দুর্দান্ত করছে। এখন সে প্রায় প্রতি ম্যাচেই চার ওভার করেই বল করছে। আর হার্দিক চার ওভার করে বল করতে পারায় দলে বেন কাটিংকে নিয়ে ব্যাটিং শক্তি বাড়াতে পারছে মুম্বাই। মূলত এ কারণেই মোস্তাফিজের মতো বোলারকে ছাড়াই খেলতে পারছে দলটি। এর আগে অবশ্য জহির খান বলেছিলেন, মোস্তাফিজকে নিয়ে রোহিত শর্মার পরিকল্পনায় ভুল আছে।

চলতি মৌসুমে মুম্বাইয়ের হয়ে প্রথম ছয় ম্যাচে মাঠে নামেন মোস্তাফিজ। বল হাতে প্রায় প্রতি মাচেই দুর্দান্ত পারফরম্যান্স করেছেন তিনি। কিন্তু তার দল যেন হারের বৃত্ত থেকে বেরই হতে পারছিলো না। দলটির কোয়ালিফাই রাউন্ডে খেলা নিয়ে সংশয় দেখা দেয়। সমীকরণ এমন দাঁড়ায় বাকি ম্যাচগুলোর মধ্যে একটিতে হারলেই শেষ হয়ে যাবে পরের রাউন্ডে খেলার স্বপ্ন।

এই সমীকরণের সামনে পড়েই একাদশে পরিবর্তন আনে মুম্বাই। মোস্তাফিজ আর পোলার্ডকে বাদ দিয়ে একাদশে নেওয়া হয় জেপি ডুমিনি ও কাটিংকে। এতেই যেন বদলে যায় মুম্বাইয়ের ভাগ্য। শেষ চার ম্যাচের তিনটিতে জিতে বর্তমানে পয়েন্ট টেবিলের চারে অবস্থান করছে দলটি। কোয়ালিফাই রাউন্ড খেলার দরজা এখন অনেকটাই খোলা তাদের সামনে।

ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগের (আইপিএল) আগের দুই আসর খেলেছেন সানরাইজার্স হায়দ্রাবাদের হয়ে। একাদশ আসরে খেলছেন মুম্বাই ইন্ডিয়ান্সের হয়ে। ‘ম্যাচ উইনার’ না হলেও শুরুটা ভালোই হয়েছে বাংলাদেশের বাঁহাতি পেসার মোস্তাফিজুর রহমানের।

তবে হঠাৎ করেই সাইট বেঞ্চ ঠিকানা হয়ে গেছে মোস্তাফিজের। এ নিয়ে আলোচনা-সমালোচনায় মুখরিত হয়েছেন আইপিএলের ক্রিকেট বিশেষজ্ঞরা। এবার জানা গেলো মোস্তাফিজের দলের বাইরে থাকার কারণ।

ভারতের সাবেক ক্রিকেটার জহির খান চলতি আইপিএলে আছেন বিশেষজ্ঞ ও ধারাভাষ্যকারের ভূমিকায়। এর আগেও তিনি মোস্তাফিজ প্রসঙ্গে কথা বলেছেন, এবারও জানালেন কেন মুম্বাই মোস্তাফিজকে দলে নিতে পারছে না।

আইপিএলের এক বিশ্লেষণমূলক অনুষ্ঠানে জহির খান বলেন, হার্দিক ব্যাট আর বলে দুর্দান্ত করছে। এখন সে প্রায় প্রতি ম্যাচেই চার ওভার করেই বল করছে। আর হার্দিক চার ওভার করে বল করতে পারায় দলে বেন কাটিংকে নিয়ে ব্যাটিং শক্তি বাড়াতে পারছে মুম্বাই। মূলত এ কারণেই মোস্তাফিজের মতো বোলারকে ছাড়াই খেলতে পারছে দলটি। এর আগে অবশ্য জহির খান বলেছিলেন, মোস্তাফিজকে নিয়ে রোহিত শর্মার পরিকল্পনায় ভুল আছে।

চলতি মৌসুমে মুম্বাইয়ের হয়ে প্রথম ছয় ম্যাচে মাঠে নামেন মোস্তাফিজ। বল হাতে প্রায় প্রতি মাচেই দুর্দান্ত পারফরম্যান্স করেছেন তিনি। কিন্তু তার দল যেন হারের বৃত্ত থেকে বেরই হতে পারছিলো না। দলটির কোয়ালিফাই রাউন্ডে খেলা নিয়ে সংশয় দেখা দেয়। সমীকরণ এমন দাঁড়ায় বাকি ম্যাচগুলোর মধ্যে একটিতে হারলেই শেষ হয়ে যাবে পরের রাউন্ডে খেলার স্বপ্ন।

এই সমীকরণের সামনে পড়েই একাদশে পরিবর্তন আনে মুম্বাই। মোস্তাফিজ আর পোলার্ডকে বাদ দিয়ে একাদশে নেওয়া হয় জেপি ডুমিনি ও কাটিংকে। এতেই যেন বদলে যায় মুম্বাইয়ের ভাগ্য। শেষ চার ম্যাচের তিনটিতে জিতে বর্তমানে পয়েন্ট টেবিলের চারে অবস্থান করছে দলটি। কোয়ালিফাই রাউন্ড খেলার দরজা এখন অনেকটাই খোলা তাদের সামনে।

ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগের (আইপিএল) আগের দুই আসর খেলেছেন সানরাইজার্স হায়দ্রাবাদের হয়ে। একাদশ আসরে খেলছেন মুম্বাই ইন্ডিয়ান্সের হয়ে। ‘ম্যাচ উইনার’ না হলেও শুরুটা ভালোই হয়েছে বাংলাদেশের বাঁহাতি পেসার মোস্তাফিজুর রহমানের।

তবে হঠাৎ করেই সাইট বেঞ্চ ঠিকানা হয়ে গেছে মোস্তাফিজের। এ নিয়ে আলোচনা-সমালোচনায় মুখরিত হয়েছেন আইপিএলের ক্রিকেট বিশেষজ্ঞরা। এবার জানা গেলো মোস্তাফিজের দলের বাইরে থাকার কারণ।

ভারতের সাবেক ক্রিকেটার জহির খান চলতি আইপিএলে আছেন বিশেষজ্ঞ ও ধারাভাষ্যকারের ভূমিকায়। এর আগেও তিনি মোস্তাফিজ প্রসঙ্গে কথা বলেছেন, এবারও জানালেন কেন মুম্বাই মোস্তাফিজকে দলে নিতে পারছে না।

আইপিএলের এক বিশ্লেষণমূলক অনুষ্ঠানে জহির খান বলেন, হার্দিক ব্যাট আর বলে দুর্দান্ত করছে। এখন সে প্রায় প্রতি ম্যাচেই চার ওভার করেই বল করছে। আর হার্দিক চার ওভার করে বল করতে পারায় দলে বেন কাটিংকে নিয়ে ব্যাটিং শক্তি বাড়াতে পারছে মুম্বাই। মূলত এ কারণেই মোস্তাফিজের মতো বোলারকে ছাড়াই খেলতে পারছে দলটি। এর আগে অবশ্য জহির খান বলেছিলেন, মোস্তাফিজকে নিয়ে রোহিত শর্মার পরিকল্পনায় ভুল আছে।

খুশির খবর : সেপ্টেম্বরে পূর্ণাঙ্গ সিরিজের পরিবর্তে অস্ট্রেলিয়ার মাটিতে ত্রিদেশীয় টি-টোয়েন্টি সিরিজ খেলবে বাংলাদেশ

সর্বপ্রথম ২০০৩ সালে অস্ট্রেলিয়ার মাঠে পূর্ণাঙ্গ সিরিজ খেলার সৌভাগ্য হয়েছিল বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দলের। এরপর ২০০৮ সালে তিনটি ওয়ানডে এবং ২০১৫ সালে বিশ্বকাপ অস্ট্রেলিয়া খেলেছিলো বাংলাদেশ জাতীয় দল। এরপর আর কোন টুর্নামেন্ট এবং ম্যাচ খেলতে অস্ট্রেলিয়া যাওয়া হয়নি বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দলের।

এ বছর সেপ্টেম্বরে পূর্ণাঙ্গ সিরিজ খেলতে অস্ট্রেলিয়া যাওয়ার কথা ছিল বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দলের। কিন্তু আর্থিক ক্ষতির কারণ দেখিয়ে এই সিরিজ বাতিল করেছে অস্ট্রেলিয়ার ক্রিকেট বোর্ড। আর তাই বিকল্প হিসাবে আগামী বছরের শেষের দিকে অস্ট্রেলিয়ার মাটিতে একটি ত্রিদেশীয় টি-টোয়েন্টি টুর্নামেন্টে খেলবে বাংলাদেশ জাতীয় দল।

এই বিষয়টি নিশ্চিত করেছে অস্ট্রেলিয়া ক্রিকেট বোর্ডের এক মুখপাত্র। বাংলাদেশ-অস্ট্রেলিয়া সিরিজ নিয়ে এই মুখপাত্র সাংবাদিকদের বলেন, ‘আইসিসির এফটিপি অনুযায়ী বাংলাদেশের চলতি বছরের অগাস্টে অস্ট্রেলিয়া সফরে আসার কথা ছিলো , তবে সেটি ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া এবং বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড উভয় পক্ষের সমঝোতায় বাতিল করা হয়েছে। দুই দেশই ২০২০ টি টোয়েন্টি বিশ্বকাপের কথা ভেবে এই সিরিজটি বাতিলে রাজি হয়েছে।’

তবে এই সিরিজের তৃতীয় দল হিসাবে কোন দল খেলবে তা এখনো চূড়ান্ত করেনি ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া। ২০২০ সালের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ অস্ট্রেলিয়ায় অনুষ্ঠিত হবে তাই এই প্রস্তাবে অনেকটা রাজি হয়েছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড।

সর্বপ্রথম ২০০৩ সালে অস্ট্রেলিয়ার মাঠে পূর্ণাঙ্গ সিরিজ খেলার সৌভাগ্য হয়েছিল বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দলের। এরপর ২০০৮ সালে তিনটি ওয়ানডে এবং ২০১৫ সালে বিশ্বকাপ অস্ট্রেলিয়া খেলেছিলো বাংলাদেশ জাতীয় দল। এরপর আর কোন টুর্নামেন্ট এবং ম্যাচ খেলতে অস্ট্রেলিয়া যাওয়া হয়নি বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দলের।

এ বছর সেপ্টেম্বরে পূর্ণাঙ্গ সিরিজ খেলতে অস্ট্রেলিয়া যাওয়ার কথা ছিল বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দলের। কিন্তু আর্থিক ক্ষতির কারণ দেখিয়ে এই সিরিজ বাতিল করেছে অস্ট্রেলিয়ার ক্রিকেট বোর্ড। আর তাই বিকল্প হিসাবে আগামী বছরের শেষের দিকে অস্ট্রেলিয়ার মাটিতে একটি ত্রিদেশীয় টি-টোয়েন্টি টুর্নামেন্টে খেলবে বাংলাদেশ জাতীয় দল।

এই বিষয়টি নিশ্চিত করেছে অস্ট্রেলিয়া ক্রিকেট বোর্ডের এক মুখপাত্র। বাংলাদেশ-অস্ট্রেলিয়া সিরিজ নিয়ে এই মুখপাত্র সাংবাদিকদের বলেন, ‘আইসিসির এফটিপি অনুযায়ী বাংলাদেশের চলতি বছরের অগাস্টে অস্ট্রেলিয়া সফরে আসার কথা ছিলো , তবে সেটি ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া এবং বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড উভয় পক্ষের সমঝোতায় বাতিল করা হয়েছে। দুই দেশই ২০২০ টি টোয়েন্টি বিশ্বকাপের কথা ভেবে এই সিরিজটি বাতিলে রাজি হয়েছে।’

তবে এই সিরিজের তৃতীয় দল হিসাবে কোন দল খেলবে তা এখনো চূড়ান্ত করেনি ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া। ২০২০ সালের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ অস্ট্রেলিয়ায় অনুষ্ঠিত হবে তাই এই প্রস্তাবে অনেকটা রাজি হয়েছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড।

সর্বপ্রথম ২০০৩ সালে অস্ট্রেলিয়ার মাঠে পূর্ণাঙ্গ সিরিজ খেলার সৌভাগ্য হয়েছিল বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দলের। এরপর ২০০৮ সালে তিনটি ওয়ানডে এবং ২০১৫ সালে বিশ্বকাপ অস্ট্রেলিয়া খেলেছিলো বাংলাদেশ জাতীয় দল। এরপর আর কোন টুর্নামেন্ট এবং ম্যাচ খেলতে অস্ট্রেলিয়া যাওয়া হয়নি বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দলের।

এ বছর সেপ্টেম্বরে পূর্ণাঙ্গ সিরিজ খেলতে অস্ট্রেলিয়া যাওয়ার কথা ছিল বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দলের। কিন্তু আর্থিক ক্ষতির কারণ দেখিয়ে এই সিরিজ বাতিল করেছে অস্ট্রেলিয়ার ক্রিকেট বোর্ড। আর তাই বিকল্প হিসাবে আগামী বছরের শেষের দিকে অস্ট্রেলিয়ার মাটিতে একটি ত্রিদেশীয় টি-টোয়েন্টি টুর্নামেন্টে খেলবে বাংলাদেশ জাতীয় দল।

এই বিষয়টি নিশ্চিত করেছে অস্ট্রেলিয়া ক্রিকেট বোর্ডের এক মুখপাত্র। বাংলাদেশ-অস্ট্রেলিয়া সিরিজ নিয়ে এই মুখপাত্র সাংবাদিকদের বলেন, ‘আইসিসির এফটিপি অনুযায়ী বাংলাদেশের চলতি বছরের অগাস্টে অস্ট্রেলিয়া সফরে আসার কথা ছিলো , তবে সেটি ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া এবং বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড উভয় পক্ষের সমঝোতায় বাতিল করা হয়েছে। দুই দেশই ২০২০ টি টোয়েন্টি বিশ্বকাপের কথা ভেবে এই সিরিজটি বাতিলে রাজি হয়েছে।’

তবে এই সিরিজের তৃতীয় দল হিসাবে কোন দল খেলবে তা এখনো চূড়ান্ত করেনি ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া। ২০২০ সালের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ অস্ট্রেলিয়ায় অনুষ্ঠিত হবে তাই এই প্রস্তাবে অনেকটা রাজি হয়েছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড।

যৌন শক্তি বৃদ্ধির অন্যতম উপায় হল মিসওয়াক করা!

যৌন শক্তি বা সেক্স পাওয়ার বৃদ্ধির বিভিন্ন পথ ও পদ্ধতি আছে।এখন একটি আত্মীক ও ঈমানী আলোচনা পেশ করা হচ্ছে। নবী করীম (সাঃ) এর সুন্নত মেসওয়াক করা। মেসওয়াক করার দ্বরা দুনিয়া ও আখেরাত উভয়টিরই অগণিত উপকার রয়েছে। যৌন শক্তি বৃদ্ধিসহ মেসওয়াকের যতগুলো উপকার রয়েছে, তন্মধ্যে নিম্মে কিছু আলোকপাত করছি।

যৌন শক্তি

মেসওয়াক করার দ্বারা সেক্স পাওয়ার মাত্রাতিরিক্ত বৃদ্ধি পায়। স্ত্রীর মুখের দুর্গন্ধ স্বামীর মনে যৌন চাহিদার মাত্রা যতই থাকুক না কেন, তাকে প্রতিরোধ করে দেয়। এ দুর্গন্ধ বন্ধের অন্যতম উপায় হল মেসওয়াক করা।
Promoted Content
Mgid
For The Love Of Money? 10 Celebrity Marriages Based On Bank
Celebs That Are Absolute Nightmares To Work With

মাত্র ২ মিনিটেই স্ত্রীকে চরম সুখ দেওয়ার উপায় জেনে নিন

বিভিন্ন হাদীসের আলোকে জানা যায়, মেসওয়াক করার দ্বারা মুখে সুঘ্রাণ সৃষ্টি হয়, মুখ পরিস্কার হয়, দিল দেমাগ শক্তিশালী হয়, অনেক রোগ থেকে মুক্তি পাওয়া যায়, মেসওয়াককারী ব্যক্তির সাথে ফেরেস্তারা মুসাফাহা করে, যিনা ব্যভিচার থেকে মুক্তির উপায়, দাঁতকে শক্তিশালী বানায়, দাঁতে ঝলক সৃষ্টি করে, দাঁতের মাড়ি মজবুত করে, কাশ বের করে দেয়, দৃষ্টিশক্তি বৃদ্ধি পায়, ক্ষুধা বৃদ্ধি করে, মেসওয়াকে অভ্যস্ত ব্যক্তির রুজী রোজগার সহজলভ্য হয়ে যায়, অনেক দেরিতে বৃদ্ধপনা দেখা দেয়, কোমর মজবুত ও শক্তিশালী বানায় ইত্যাদি।
Promoted Content
Mgid
For The Love Of Money? 10 Celebrity Marriages Based On Bank
ফেসবুক কমেন্ট

0 comments
About সাদিয়া প্রভা
সাদিয়া প্রভা , ইন্ডিয়ার Apex Group of Institutions এর BBA এর ছাত্রী ছিলাম। বর্তমানে বাংলাদেশে স্বাস্থ্য বিয়সক তথ্য নিয়ে লেখালেখি করি।

নারীদের যে গোপন বিষয়গুলো ছেলেরা কখনো জানতে পারেনা!

রেমিকরা কি তাদের প্রেমিকার সম্পর্কে সব কিছু জানতে পারে? সম্পর্ক যত দীর্ঘ সময়েরই হোক না কেন
প্রেমিকার মনের সব গোপন কথা প্রেমিক কখনোই জানতে পারবে না এ কথা হলফ করে বলা যায়। মেয়েদের কিছু কিছু সিক্রেট থাকে যেগুলো তারা কাউকেই বলতে স্বাচ্ছন্দ্যবোধ করে না। বিশেষ করে তারা কিছু বিষয় ভুলেও প্রেমিককে জানায় না। আসুন জেনে নেয়া যাক প্রেমিকাদের সেই ৬টি সিক্রেট বিষয়গুলো তারা প্রাণপণে লুকিয়ে রাখে প্রেমিকদের কাছ থেকে।

গোপন
নারীদের যে গোপন বিষয়গুলো ছেলেরা কখনো জানতে পারেনা

আসল বয়স
মেয়েদের আসল বয়স জানা আসলেই কঠিন। আসল বয়সটা ঠিক কত এটা বেশিরভাগ মেয়েরাই তার প্রেমিককে বলতে চায় না। এমনকি অনেক মেয়ে তার সবচাইতে কাছের মেয়ে বান্ধবীকেও নিজের আসল বয়স বলতে দ্বিধা বোধ করে। তাই নিজের প্রকৃত বয়সের চাইতে কয়েক বছর কমিয়ে বলার প্রবণতা লক্ষ্য করা যায় অনেকের মধ্যেই। বয়স বললেই বুড়িয়ে যাবেন এমনটাই মনে করেন বেশিরভাগ নারী।
কাপড় বদলানোর গোপন দৃশ্য দেখার পর যা ঘটল দেখুন ভিডিও …
ভিডিও

প্রেমের সংখ্যা
প্রেমিকার পূর্বে কত গুলো প্রেম ছিলো এটা জানাটা প্রেমিকদের জন্য মোটামুটি অসম্ভব একটি ব্যাপার। কারণ কোনো নারীই নিজের জীবনের সঠিক প্রেমের সংখ্যা বলে না কাউকে। প্রেমিককে তো একেবারেই নয়। এক্ষেত্রে বেশিরভাগ নারীই তাদের প্রেমিকের কাছে বলে থাকে যে এটাই তার জীবনের প্রথম প্রেম।
Promoted Content
Mgid
For The Love Of Money? 10 Celebrity Marriages Based On Bank
8 Celebrity Body Parts That Brought Them Fame And Money
Promoted Content
Mgid
For The Love Of Money? 10 Celebrity Marriages Based On Bank
8 Celebrity Body Parts That Brought Them Fame And Money

কুমারীত্ব
বর্তমান সমাজে নৈতিক অবক্ষয়ের কারনে অনেক মেয়েই বিয়ের আগেই কুমারীত্ব হারিয়ে ফেলছে। কিন্তু পরবর্তিতে দেখা যাচ্ছে সেই সম্পর্কটি টিকছে না এবং অন্য কোথাও বিয়ে করছে তারা। প্রেমিক কিংবা স্বামী যদি কুমারীত্ব নিয়ে প্রশ্ন করে তাহলে প্রায় সব মেয়েই কুমারীত্ব হারানোর বিষয়টি অস্বীকার করে কিংবা এড়িয়ে যায়, কিংবা বানোয়াট একটা কাহিনী বলে। কখনোই স্বীকার করে না যে ব্যাপারটি তার মর্জিতেই হয়েছে।
গোপন অঙ্গের দুর্গন্ধ দূর করার কার্যকরী উপায় জেনে নিন

প্রেমের প্রস্তাব
বেশিরভাগ মেয়েরাই মনে করেন যে প্রেমের প্রস্তাবের সংখ্যা যার যত বেশি সে তত বেশি সুন্দরী ও যোগ্য। আর তাই নিজের প্রেমিকের কাছে অনেক মেয়েই প্রেমের প্রস্তাবের সংখ্যাটা বাড়িয়ে বাড়িয়ে বলে থাকে। জীবনে একটি প্রেমের প্রস্তাব না পেলেও অনেকেই সেটাকে বাড়িয়ে অনেক গুলো প্রেমের প্রস্তাব পাওয়ার কথা বলে থাকে।

বাবার সম্পত্তি
মেয়েরা বাবার সম্পত্তি নিয়ে বেশ কিছু বিষয় প্রেমিকের কাছে সিক্রেট রাখে। অধিকাংশ মেয়ের ধারণা যে যার বাবার যত বেশি সম্পদ, প্রেমিকের কাছে তার দাম তত বেশি। আর এই ধারণার কারনেই বেশিরভাগ প্রেমিকা তার প্রেমিকের কাছে বাবার ধন সম্পদের বিবরণটা কিছুটা রঙ-চং মাখিয়ে বাড়িয়ে বলে থাকে। অর্থাৎ প্রেমিকার বাবার প্রকৃত আর্থিক অবস্থার বিষয়টি অনেক প্রেমিকই জানতে পারে না।

প্রীতি জিনতার পাঞ্জাব একাদশ থেকে আবারও ছিটকে গেলেন গেইল!

স্পোর্টস ডেস্ক: আইপিএলে বাজে আম্পায়ারিং নিয়ে ক্ষুদ্ধ সানরাইজার্সরা। রোববার চেন্নাই সুপার কিংসদের সঙ্গে ম্যাচে লড়াই করেও ৪ রানে হেরেছে কেন উইলিয়ামসের দল। ম্যাচটিতে একটি নিশ্চিত নো বল দেননি থার্ড আম্পায়ার বিনিত কুলকার্নি। ম্যাচের পর বিষয়টি নিয়ে ম্যাচ রেফারি সুনীল চর্তুবেদীর সঙ্গে দেখা করেন সানরাইজার্স হায়দরাবাদের টিম ম্যানেজার।

রাজীব গান্ধী আন্তর্জাতিক স্টেডিয়ামে প্রথম ব্যাট করে সানরাইজার্সদের সামনে ১৮৩ রানের লক্ষ্য রাখে চেন্নাই। এই রান তাড়া করতে নেমে অধিনায়ক কেন উইলিয়ামস ও ইউসুফ পাঠানের ব্যাটে ১৮ ওভার শেষে ১৫০ রান তোলে সানরাইজার্সরা। আঠারো নম্বর ওভারটিতে বল করতে আসেন চেন্নাই পেসার শার্দুল ঠাকুর।

তার দ্বিতীয় বলটি কেন উইলিয়ামসের বুকের উপরের উচ্চতার হওয়া সত্ত্বে থার্ড আম্পায়ার বিনিত কুলকার্নি ‘নো বল’ ঘোষণা করেননি। সুযোগ থাকলেও ফোর্থ আম্পায়ারের কাছে মত নেওয়ারও প্রয়োজন অনুভব করেননি কুলকার্নি। অথচ টিভি ক্যামেরাই বারবার ধরা পড়ছিল শার্দুলের করা বলটির উচ্চতা ‘নো বলের’ সীমা অতিক্রম করেছে।

চেন্নাইয়ের সঙ্গে ম্যাচটিতে মাত্র চার রানে হেরেছে হায়দরাবাদ সানরাইজার্স। শার্দুলের বলটিকে যদি আম্পায়ার নো বল ঘোষণা করতেন সেক্ষেত্রে একটি বাড়তি রান পাওয়ার সঙ্গেই ফ্রি হিট পেতেন ফর্মে থাকা কেন উইলিয়ামস। এবং সেক্ষেত্রে ম্যাচের ফলাফল অন্য রকম হওয়ার সুযোগ ছিল। তাই বিষয়টি নিয়ে সোচ্চার হওয়ার সঙ্গেই ম্যাচ রেফারির কাছে দরবার করেছেন সানরাইজার্স হায়দরাবাদ কর্তৃপক্ষ।

স্পোর্টস ডেস্ক: আইপিএলে বাজে আম্পায়ারিং নিয়ে ক্ষুদ্ধ সানরাইজার্সরা। রোববার চেন্নাই সুপার কিংসদের সঙ্গে ম্যাচে লড়াই করেও ৪ রানে হেরেছে কেন উইলিয়ামসের দল। ম্যাচটিতে একটি নিশ্চিত নো বল দেননি থার্ড আম্পায়ার বিনিত কুলকার্নি। ম্যাচের পর বিষয়টি নিয়ে ম্যাচ রেফারি সুনীল চর্তুবেদীর সঙ্গে দেখা করেন সানরাইজার্স হায়দরাবাদের টিম ম্যানেজার।

রাজীব গান্ধী আন্তর্জাতিক স্টেডিয়ামে প্রথম ব্যাট করে সানরাইজার্সদের সামনে ১৮৩ রানের লক্ষ্য রাখে চেন্নাই। এই রান তাড়া করতে নেমে অধিনায়ক কেন উইলিয়ামস ও ইউসুফ পাঠানের ব্যাটে ১৮ ওভার শেষে ১৫০ রান তোলে সানরাইজার্সরা। আঠারো নম্বর ওভারটিতে বল করতে আসেন চেন্নাই পেসার শার্দুল ঠাকুর।

তার দ্বিতীয় বলটি কেন উইলিয়ামসের বুকের উপরের উচ্চতার হওয়া সত্ত্বে থার্ড আম্পায়ার বিনিত কুলকার্নি ‘নো বল’ ঘোষণা করেননি। সুযোগ থাকলেও ফোর্থ আম্পায়ারের কাছে মত নেওয়ারও প্রয়োজন অনুভব করেননি কুলকার্নি। অথচ টিভি ক্যামেরাই বারবার ধরা পড়ছিল শার্দুলের করা বলটির উচ্চতা ‘নো বলের’ সীমা অতিক্রম করেছে।

চেন্নাইয়ের সঙ্গে ম্যাচটিতে মাত্র চার রানে হেরেছে হায়দরাবাদ সানরাইজার্স। শার্দুলের বলটিকে যদি আম্পায়ার নো বল ঘোষণা করতেন সেক্ষেত্রে একটি বাড়তি রান পাওয়ার সঙ্গেই ফ্রি হিট পেতেন ফর্মে থাকা কেন উইলিয়ামস। এবং সেক্ষেত্রে ম্যাচের ফলাফল অন্য রকম হওয়ার সুযোগ ছিল। তাই বিষয়টি নিয়ে সোচ্চার হওয়ার সঙ্গেই ম্যাচ রেফারির কাছে দরবার করেছেন সানরাইজার্স হায়দরাবাদ কর্তৃপক্ষ।

স্পোর্টস ডেস্ক: আইপিএলে বাজে আম্পায়ারিং নিয়ে ক্ষুদ্ধ সানরাইজার্সরা। রোববার চেন্নাই সুপার কিংসদের সঙ্গে ম্যাচে লড়াই করেও ৪ রানে হেরেছে কেন উইলিয়ামসের দল। ম্যাচটিতে একটি নিশ্চিত নো বল দেননি থার্ড আম্পায়ার বিনিত কুলকার্নি। ম্যাচের পর বিষয়টি নিয়ে ম্যাচ রেফারি সুনীল চর্তুবেদীর সঙ্গে দেখা করেন সানরাইজার্স হায়দরাবাদের টিম ম্যানেজার।

রাজীব গান্ধী আন্তর্জাতিক স্টেডিয়ামে প্রথম ব্যাট করে সানরাইজার্সদের সামনে ১৮৩ রানের লক্ষ্য রাখে চেন্নাই। এই রান তাড়া করতে নেমে অধিনায়ক কেন উইলিয়ামস ও ইউসুফ পাঠানের ব্যাটে ১৮ ওভার শেষে ১৫০ রান তোলে সানরাইজার্সরা। আঠারো নম্বর ওভারটিতে বল করতে আসেন চেন্নাই পেসার শার্দুল ঠাকুর।

তার দ্বিতীয় বলটি কেন উইলিয়ামসের বুকের উপরের উচ্চতার হওয়া সত্ত্বে থার্ড আম্পায়ার বিনিত কুলকার্নি ‘নো বল’ ঘোষণা করেননি। সুযোগ থাকলেও ফোর্থ আম্পায়ারের কাছে মত নেওয়ারও প্রয়োজন অনুভব করেননি কুলকার্নি। অথচ টিভি ক্যামেরাই বারবার ধরা পড়ছিল শার্দুলের করা বলটির উচ্চতা ‘নো বলের’ সীমা অতিক্রম করেছে।

চেন্নাইয়ের সঙ্গে ম্যাচটিতে মাত্র চার রানে হেরেছে হায়দরাবাদ সানরাইজার্স। শার্দুলের বলটিকে যদি আম্পায়ার নো বল ঘোষণা করতেন সেক্ষেত্রে একটি বাড়তি রান পাওয়ার সঙ্গেই ফ্রি হিট পেতেন ফর্মে থাকা কেন উইলিয়ামস। এবং সেক্ষেত্রে ম্যাচের ফলাফল অন্য রকম হওয়ার সুযোগ ছিল। তাই বিষয়টি নিয়ে সোচ্চার হওয়ার সঙ্গেই ম্যাচ রেফারির কাছে দরবার করেছেন সানরাইজার্স হায়দরাবাদ কর্তৃপক্ষ।

জমকালো বিয়ে ক্রিকেটার সৌম্যর

স্পোর্টস ডেস্ক: বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড বিসিবি এর কেন্দ্রীয় চুক্তি থেকে বাদ পড়ে জমকালো বিয়েতে ক্রিকেটার সৌম্য সরকার। গত কয়েকদিন ধরে ভাইয়ের বিয়েতে পরিবারে সাথে আনন্দে মেতে উঠেছেন সৌম্য। একটু আগে সৌম্য নিজেই ফেসবুক পেইজে ভাইয়ের বিয়ের কয়েকটি ছবি পোস্ট করে ক্যাপশনে লিখেছেন, ‘মেজো দাদার বিয়ের অনুষ্ঠান।’ ছবিতে সৌম্যমে বেশ উচ্ছ্বসিত দেখা যাচ্ছে।

এদিকে ক্যারিয়ারের এ দুঃসময়েও পরিবারের সাথে সৌম্যকে উল্লাসে মেতে উঠতে দেখে ভক্তরা নানা কমেন্ট করতে থাকেন। একভক্ত লিখেছেন, ‘সৌম ভাই, একটা মানুষের জীবনে সব কিছুর দরকার অাছে, ক্রিকেটাররা এটা ভুলে গেলে চলবে না ।’

আরেকভক্ত লিখেছেন, ‘আপনি কবে বিয়ে করবেন ?’ আরেকভক্ত লিখেছেন, ‘দাদা আপনাকে অনেক সুন্দর লাগছে।’ আরেকভক্ত লিখেছেন, ‘ ধুতি পাঞ্জাবিতে খুব সুন্দর লাগতেছে দাদা।’

সৌম্য৩৩আরেকভক্ত লিখেছেন, ‘জবাব দিতে হবে বস। এবার দেখিয়ে দাও তুমি কি জিনিস। এসব বিয়ের চিন্তা বাদ দিয়ে খেলার দিকে মনোযোগ দাও। তোমাকে যে পাল্টা জবাব দিতে হবে।’ আরেকভক্ত লিখেছেন, ‘লাইন তোমারটা এবার ক্লিয়ার তো?’ আরেকভক্ত লিখেছেন, ‘শুভ কামনা রইলো।’

স্পোর্টস ডেস্ক: বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড বিসিবি এর কেন্দ্রীয় চুক্তি থেকে বাদ পড়ে জমকালো বিয়েতে ক্রিকেটার সৌম্য সরকার। গত কয়েকদিন ধরে ভাইয়ের বিয়েতে পরিবারে সাথে আনন্দে মেতে উঠেছেন সৌম্য। একটু আগে সৌম্য নিজেই ফেসবুক পেইজে ভাইয়ের বিয়ের কয়েকটি ছবি পোস্ট করে ক্যাপশনে লিখেছেন, ‘মেজো দাদার বিয়ের অনুষ্ঠান।’ ছবিতে সৌম্যমে বেশ উচ্ছ্বসিত দেখা যাচ্ছে।

এদিকে ক্যারিয়ারের এ দুঃসময়েও পরিবারের সাথে সৌম্যকে উল্লাসে মেতে উঠতে দেখে ভক্তরা নানা কমেন্ট করতে থাকেন। একভক্ত লিখেছেন, ‘সৌম ভাই, একটা মানুষের জীবনে সব কিছুর দরকার অাছে, ক্রিকেটাররা এটা ভুলে গেলে চলবে না ।’

আরেকভক্ত লিখেছেন, ‘আপনি কবে বিয়ে করবেন ?’ আরেকভক্ত লিখেছেন, ‘দাদা আপনাকে অনেক সুন্দর লাগছে।’ আরেকভক্ত লিখেছেন, ‘ ধুতি পাঞ্জাবিতে খুব সুন্দর লাগতেছে দাদা।’

সৌম্য৩৩আরেকভক্ত লিখেছেন, ‘জবাব দিতে হবে বস। এবার দেখিয়ে দাও তুমি কি জিনিস। এসব বিয়ের চিন্তা বাদ দিয়ে খেলার দিকে মনোযোগ দাও। তোমাকে যে পাল্টা জবাব দিতে হবে।’ আরেকভক্ত লিখেছেন, ‘লাইন তোমারটা এবার ক্লিয়ার তো?’ আরেকভক্ত লিখেছেন, ‘শুভ কামনা রইলো।’

স্পোর্টস ডেস্ক: বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড বিসিবি এর কেন্দ্রীয় চুক্তি থেকে বাদ পড়ে জমকালো বিয়েতে ক্রিকেটার সৌম্য সরকার। গত কয়েকদিন ধরে ভাইয়ের বিয়েতে পরিবারে সাথে আনন্দে মেতে উঠেছেন সৌম্য। একটু আগে সৌম্য নিজেই ফেসবুক পেইজে ভাইয়ের বিয়ের কয়েকটি ছবি পোস্ট করে ক্যাপশনে লিখেছেন, ‘মেজো দাদার বিয়ের অনুষ্ঠান।’ ছবিতে সৌম্যমে বেশ উচ্ছ্বসিত দেখা যাচ্ছে।

এদিকে ক্যারিয়ারের এ দুঃসময়েও পরিবারের সাথে সৌম্যকে উল্লাসে মেতে উঠতে দেখে ভক্তরা নানা কমেন্ট করতে থাকেন। একভক্ত লিখেছেন, ‘সৌম ভাই, একটা মানুষের জীবনে সব কিছুর দরকার অাছে, ক্রিকেটাররা এটা ভুলে গেলে চলবে না ।’

আরেকভক্ত লিখেছেন, ‘আপনি কবে বিয়ে করবেন ?’ আরেকভক্ত লিখেছেন, ‘দাদা আপনাকে অনেক সুন্দর লাগছে।’ আরেকভক্ত লিখেছেন, ‘ ধুতি পাঞ্জাবিতে খুব সুন্দর লাগতেছে দাদা।’স্পোর্টস ডেস্ক: বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড বিসিবি এর কেন্দ্রীয় চুক্তি থেকে বাদ পড়ে জমকালো বিয়েতে ক্রিকেটার সৌম্য সরকার। গত কয়েকদিন ধরে ভাইয়ের বিয়েতে পরিবারে সাথে আনন্দে মেতে উঠেছেন সৌম্য। একটু আগে সৌম্য নিজেই ফেসবুক পেইজে ভাইয়ের বিয়ের কয়েকটি ছবি পোস্ট করে ক্যাপশনে লিখেছেন, ‘মেজো দাদার বিয়ের অনুষ্ঠান।’ ছবিতে সৌম্যমে বেশ উচ্ছ্বসিত দেখা যাচ্ছে।

এদিকে ক্যারিয়ারের এ দুঃসময়েও পরিবারের সাথে সৌম্যকে উল্লাসে মেতে উঠতে দেখে ভক্তরা নানা কমেন্ট করতে থাকেন। একভক্ত লিখেছেন, ‘সৌম ভাই, একটা মানুষের জীবনে সব কিছুর দরকার অাছে, ক্রিকেটাররা এটা ভুলে গেলে চলবে না ।’

আরেকভক্ত লিখেছেন, ‘আপনি কবে বিয়ে করবেন ?’ আরেকভক্ত লিখেছেন, ‘দাদা আপনাকে অনেক সুন্দর লাগছে।’ আরেকভক্ত লিখেছেন, ‘ ধুতি পাঞ্জাবিতে খুব সুন্দর লাগতেছে দাদা।’

সৌম্য৩৩আরেকভক্ত লিখেছেন, ‘জবাব দিতে হবে বস। এবার দেখিয়ে দাও তুমি কি জিনিস। এসব বিয়ের চিন্তা বাদ দিয়ে খেলার দিকে মনোযোগ দাও। তোমাকে যে পাল্টা জবাব দিতে হবে।’ আরেকভক্ত লিখেছেন, ‘লাইন তোমারটা এবার ক্লিয়ার তো?’ আরেকভক্ত লিখেছেন, ‘শুভ কামনা রইলো।’

সৌম্য৩৩আরেকভক্ত লিখেছেন, ‘জবাব দিতে হবে বস। এবার দেখিয়ে দাও তুমি কি জিনিস। এসব বিয়ের চিন্তা বাদ দিয়ে খেলার দিকে মনোযোগ দাও। তোমাকে যে পাল্টা জবাব দিতে হবে।’ আরেকভক্ত লিখেছেন, ‘লাইন তোমারটা এবার ক্লিয়ার তো?’ আরেকভক্ত লিখেছেন, ‘শুভ কামনা রইলো।’

ইংল্যান্ডে দুর্দান্ত ব্যাটিং করছেন অাশরাফুল! ৪৭ বল, ৬ চার, ১৪ ছক্কা, ১৩১ রান!

বাংলাদেশ ক্রিকেট ইতিহাসের এক সময়ে সেরা ব্যাটসম্যান ছিলেন মোহাম্মাদ অাশরাফুল। বর্তমানে ঢাকা প্রিমিয়ার লিগে কলাবাগান ক্রিড়া চক্রের হয়ে খেলছেন তিনি। লীগের শুরুতেই কলাবাগানের হয়ে সেঞ্চুরি হাঁকিয়েছেন তিনি। তবে ক্রিকেট বিশ্বে সর্বকনিষ্ঠ এই সেঞ্চুরিয়ান এবার লিস্ট এ ম্যাচ খেলতে ইংল্যান্ড যাচ্ছেন।

ইংল্যান্ডের কভেন্ট্রি ও নর্থ ওয়ারউইকশেয়ার ক্রিকেট ক্লাবের হয়ে লিস্ট ‘এ’ টুর্নামেন্টে খেলবেন তিনি। যা চলতি বছরের এপ্রিল থেকে আগস্ট মাস পয়ন্ত চলবে। তিনি কভেন্ট্রি ও নর্থ ওয়ারউইকশেয়ার ক্রিকেট ক্লাবের হয়ে ১৮টি ম্যাচ খেলার চুক্তি করেছেন। বিপিএলের দ্বিতীয় অাসরে ম্যাচ ফিক্সিংয়ের দায়ে ক্রিকেট থেকে নিষিদ্ধ ছিলেন অাশরাফুল। এ বছর শেষের দিকে সব ধারনে নিষেধাজ্ঞা উঠে যাবে তার উপর থেকে।

স্পোর্টস ডেস্ক: সেদিন কী তাণ্ডবটাই না চালিয়েছিলেন কোরি অ্যান্ডারসন। সময়টা ২০১৪ সালের ১ জানুয়ারি, ঘটনাস্থল নিউজিল্যান্ডের কুইন্সটাউন। ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে ওয়ানডেতে মাত্র ৩৬ বলে সেঞ্চুরি করেছিলেন অ্যান্ডারসন।

বৃষ্টির কারণে ম্যাচের দৈর্ঘ্য নেমে এসেছিল ২১ ওভারে। টস হেরে ব্যাট করতে নামা নিউজিল্যান্ড ৮৪ রানে ৩ উইকেট হারানোর পর উইকেটে এসেছিলেন অ্যান্ডারসন। বাঁহাতি এই ব্যাটসম্যান সুনীল নারিনকে এক ওভারে চার ছক্কা হাঁকানোর পথে ফিফটি পূর্ণ করেন মাত্র ২০ বলে।

পরের ১৬ বলেই ছুঁয়ে ফেলেন তিন অঙ্ক! ৩৫ বলে পৌঁছে গিয়েছিলেন ৯৫-এ। তখন ওয়ানডের দ্রুততম সেঞ্চুরির রেকর্ড ভাঙতে পরের বলে অ্যান্ডারসনের দরকার ছিল ছক্কা হাঁকানোর। নিকিতা মিলারের বলে স্লগ সুইপে লং লেগের ওপর দিয়ে ছক্কা হাঁকিয়ে মাইলফলক স্পর্শ করেন বাঁহাতি ব্যাটসম্যান।

অ্যান্ডারসন ভেঙেছিলেন শহীদ আফ্রিদির ১৭ বছরের অক্ষত রেকর্ড। ১৯৯৬ সালে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে নাইরোবিতে আফ্রিদি ৩৭ বলে সেঞ্চুরি হাঁকিয়েছিলেন। ৩৬ বলে সেঞ্চুরি হাঁকিয়ে সেই রেকর্ড অতীত করে দেন অ্যান্ডারসন।

অবশ্য পরের বছরের ঠিক জানুয়ারিতে জোহানেসবার্গে সেই ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষেই ৩১ বলে সেঞ্চুরি করে অ্যান্ডারসনের রেকর্ডটা ভেঙে দেন দক্ষিণ আফ্রিকার এবি ডি ভিলিয়ার্স। যেটি টিকে আছে এখনো।

আফ্রিদির রেকর্ড ভাঙার দিনে ৪৭ বলে ৬ চার ও ১৪ ছক্কায় ১৩১ রানের টর্নেডো ইনিংস খেলেছিলেন অ্যান্ডারসন। তার খুনে ব্যাটিংয়ে সেদিন আড়াল হয়ে গিয়েছিল জেসি রাইডারের ৪৬ বলের সেঞ্চুরি। অ্যান্ডারসনের সেই ইনিংসের চতুর্থ বছর পূর্তি আজ।

বাংলাদেশ ক্রিকেট ইতিহাসের এক সময়ে সেরা ব্যাটসম্যান ছিলেন মোহাম্মাদ অাশরাফুল। বর্তমানে ঢাকা প্রিমিয়ার লিগে কলাবাগান ক্রিড়া চক্রের হয়ে খেলছেন তিনি। লীগের শুরুতেই কলাবাগানের হয়ে সেঞ্চুরি হাঁকিয়েছেন তিনি। তবে ক্রিকেট বিশ্বে সর্বকনিষ্ঠ এই সেঞ্চুরিয়ান এবার লিস্ট এ ম্যাচ খেলতে ইংল্যান্ড যাচ্ছেন।

ইংল্যান্ডের কভেন্ট্রি ও নর্থ ওয়ারউইকশেয়ার ক্রিকেট ক্লাবের হয়ে লিস্ট ‘এ’ টুর্নামেন্টে খেলবেন তিনি। যা চলতি বছরের এপ্রিল থেকে আগস্ট মাস পয়ন্ত চলবে। তিনি কভেন্ট্রি ও নর্থ ওয়ারউইকশেয়ার ক্রিকেট ক্লাবের হয়ে ১৮টি ম্যাচ খেলার চুক্তি করেছেন। বিপিএলের দ্বিতীয় অাসরে ম্যাচ ফিক্সিংয়ের দায়ে ক্রিকেট থেকে নিষিদ্ধ ছিলেন অাশরাফুল। এ বছর শেষের দিকে সব ধারনে নিষেধাজ্ঞা উঠে যাবে তার উপর থেকে।

স্পোর্টস ডেস্ক: সেদিন কী তাণ্ডবটাই না চালিয়েছিলেন কোরি অ্যান্ডারসন। সময়টা ২০১৪ সালের ১ জানুয়ারি, ঘটনাস্থল নিউজিল্যান্ডের কুইন্সটাউন। ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে ওয়ানডেতে মাত্র ৩৬ বলে সেঞ্চুরি করেছিলেন অ্যান্ডারসন।

বৃষ্টির কারণে ম্যাচের দৈর্ঘ্য নেমে এসেছিল ২১ ওভারে। টস হেরে ব্যাট করতে নামা নিউজিল্যান্ড ৮৪ রানে ৩ উইকেট হারানোর পর উইকেটে এসেছিলেন অ্যান্ডারসন। বাঁহাতি এই ব্যাটসম্যান সুনীল নারিনকে এক ওভারে চার ছক্কা হাঁকানোর পথে ফিফটি পূর্ণ করেন মাত্র ২০ বলে।

পরের ১৬ বলেই ছুঁয়ে ফেলেন তিন অঙ্ক! ৩৫ বলে পৌঁছে গিয়েছিলেন ৯৫-এ। তখন ওয়ানডের দ্রুততম সেঞ্চুরির রেকর্ড ভাঙতে পরের বলে অ্যান্ডারসনের দরকার ছিল ছক্কা হাঁকানোর। নিকিতা মিলারের বলে স্লগ সুইপে লং লেগের ওপর দিয়ে ছক্কা হাঁকিয়ে মাইলফলক স্পর্শ করেন বাঁহাতি ব্যাটসম্যান।

অ্যান্ডারসন ভেঙেছিলেন শহীদ আফ্রিদির ১৭ বছরের অক্ষত রেকর্ড। ১৯৯৬ সালে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে নাইরোবিতে আফ্রিদি ৩৭ বলে সেঞ্চুরি হাঁকিয়েছিলেন। ৩৬ বলে সেঞ্চুরি হাঁকিয়ে সেই রেকর্ড অতীত করে দেন অ্যান্ডারসন।

অবশ্য পরের বছরের ঠিক জানুয়ারিতে জোহানেসবার্গে সেই ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষেই ৩১ বলে সেঞ্চুরি করে অ্যান্ডারসনের রেকর্ডটা ভেঙে দেন দক্ষিণ আফ্রিকার এবি ডি ভিলিয়ার্স। যেটি টিকে আছে এখনো।

আফ্রিদির রেকর্ড ভাঙার দিনে ৪৭ বলে ৬ চার ও ১৪ ছক্কায় ১৩১ রানের টর্নেডো ইনিংস খেলেছিলেন অ্যান্ডারসন। তার খুনে ব্যাটিংয়ে সেদিন আড়াল হয়ে গিয়েছিল জেসি রাইডারের ৪৬ বলের সেঞ্চুরি। অ্যান্ডারসনের সেই ইনিংসের চতুর্থ বছর পূর্তি আজ।

বাংলাদেশ ক্রিকেট ইতিহাসের এক সময়ে সেরা ব্যাটসম্যান ছিলেন মোহাম্মাদ অাশরাফুল। বর্তমানে ঢাকা প্রিমিয়ার লিগে কলাবাগান ক্রিড়া চক্রের হয়ে খেলছেন তিনি। লীগের শুরুতেই কলাবাগানের হয়ে সেঞ্চুরি হাঁকিয়েছেন তিনি। তবে ক্রিকেট বিশ্বে সর্বকনিষ্ঠ এই সেঞ্চুরিয়ান এবার লিস্ট এ ম্যাচ খেলতে ইংল্যান্ড যাচ্ছেন।

ইংল্যান্ডের কভেন্ট্রি ও নর্থ ওয়ারউইকশেয়ার ক্রিকেট ক্লাবের হয়ে লিস্ট ‘এ’ টুর্নামেন্টে খেলবেন তিনি। যা চলতি বছরের এপ্রিল থেকে আগস্ট মাস পয়ন্ত চলবে। তিনি কভেন্ট্রি ও নর্থ ওয়ারউইকশেয়ার ক্রিকেট ক্লাবের হয়ে ১৮টি ম্যাচ খেলার চুক্তি করেছেন। বিপিএলের দ্বিতীয় অাসরে ম্যাচ ফিক্সিংয়ের দায়ে ক্রিকেট থেকে নিষিদ্ধ ছিলেন অাশরাফুল। এ বছর শেষের দিকে সব ধারনে নিষেধাজ্ঞা উঠে যাবে তার উপর থেকে।

স্পোর্টস ডেস্ক: সেদিন কী তাণ্ডবটাই না চালিয়েছিলেন কোরি অ্যান্ডারসন। সময়টা ২০১৪ সালের ১ জানুয়ারি, ঘটনাস্থল নিউজিল্যান্ডের কুইন্সটাউন। ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে ওয়ানডেতে মাত্র ৩৬ বলে সেঞ্চুরি করেছিলেন অ্যান্ডারসন।

বৃষ্টির কারণে ম্যাচের দৈর্ঘ্য নেমে এসেছিল ২১ ওভারে। টস হেরে ব্যাট করতে নামা নিউজিল্যান্ড ৮৪ রানে ৩ উইকেট হারানোর পর উইকেটে এসেছিলেন অ্যান্ডারসন। বাঁহাতি এই ব্যাটসম্যান সুনীল নারিনকে এক ওভারে চার ছক্কা হাঁকানোর পথে ফিফটি পূর্ণ করেন মাত্র ২০ বলে।

পরের ১৬ বলেই ছুঁয়ে ফেলেন তিন অঙ্ক! ৩৫ বলে পৌঁছে গিয়েছিলেন ৯৫-এ। তখন ওয়ানডের দ্রুততম সেঞ্চুরির রেকর্ড ভাঙতে পরের বলে অ্যান্ডারসনের দরকার ছিল ছক্কা হাঁকানোর। নিকিতা মিলারের বলে স্লগ সুইপে লং লেগের ওপর দিয়ে ছক্কা হাঁকিয়ে মাইলফলক স্পর্শ করেন বাঁহাতি ব্যাটসম্যান।

অ্যান্ডারসন ভেঙেছিলেন শহীদ আফ্রিদির ১৭ বছরের অক্ষত রেকর্ড। ১৯৯৬ সালে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে নাইরোবিতে আফ্রিদি ৩৭ বলে সেঞ্চুরি হাঁকিয়েছিলেন। ৩৬ বলে সেঞ্চুরি হাঁকিয়ে সেই রেকর্ড অতীত করে দেন অ্যান্ডারসন।

অবশ্য পরের বছরের ঠিক জানুয়ারিতে জোহানেসবার্গে সেই ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষেই ৩১ বলে সেঞ্চুরি করে অ্যান্ডারসনের রেকর্ডটা ভেঙে দেন দক্ষিণ আফ্রিকার এবি ডি ভিলিয়ার্স। যেটি টিকে আছে এখনো।

আফ্রিদির রেকর্ড ভাঙার দিনে ৪৭ বলে ৬ চার ও ১৪ ছক্কায় ১৩১ রানের টর্নেডো ইনিংস খেলেছিলেন অ্যান্ডারসন। তার খুনে ব্যাটিংয়ে সেদিন আড়াল হয়ে গিয়েছিল জেসি রাইডারের ৪৬ বলের সেঞ্চুরি। অ্যান্ডারসনের সেই ইনিংসের চতুর্থ বছর পূর্তি আজ।

প্রীতি জিনতার পাঞ্জাব একাদশ থেকে আবারও ছিটকে গেলেন গেইল!

স্পোর্টস ডেস্ক: আইপিএলে বাজে আম্পায়ারিং নিয়ে ক্ষুদ্ধ সানরাইজার্সরা। রোববার চেন্নাই সুপার কিংসদের সঙ্গে ম্যাচে লড়াই করেও ৪ রানে হেরেছে কেন উইলিয়ামসের দল। ম্যাচটিতে একটি নিশ্চিত নো বল দেননি থার্ড আম্পায়ার বিনিত কুলকার্নি। ম্যাচের পর বিষয়টি নিয়ে ম্যাচ রেফারি সুনীল চর্তুবেদীর সঙ্গে দেখা করেন সানরাইজার্স হায়দরাবাদের টিম ম্যানেজার।

রাজীব গান্ধী আন্তর্জাতিক স্টেডিয়ামে প্রথম ব্যাট করে সানরাইজার্সদের সামনে ১৮৩ রানের লক্ষ্য রাখে চেন্নাই। এই রান তাড়া করতে নেমে অধিনায়ক কেন উইলিয়ামস ও ইউসুফ পাঠানের ব্যাটে ১৮ ওভার শেষে ১৫০ রান তোলে সানরাইজার্সরা। আঠারো নম্বর ওভারটিতে বল করতে আসেন চেন্নাই পেসার শার্দুল ঠাকুর।

তার দ্বিতীয় বলটি কেন উইলিয়ামসের বুকের উপরের উচ্চতার হওয়া সত্ত্বে থার্ড আম্পায়ার বিনিত কুলকার্নি ‘নো বল’ ঘোষণা করেননি। সুযোগ থাকলেও ফোর্থ আম্পায়ারের কাছে মত নেওয়ারও প্রয়োজন অনুভব করেননি কুলকার্নি। অথচ টিভি ক্যামেরাই বারবার ধরা পড়ছিল শার্দুলের করা বলটির উচ্চতা ‘নো বলের’ সীমা অতিক্রম করেছে।

চেন্নাইয়ের সঙ্গে ম্যাচটিতে মাত্র চার রানে হেরেছে হায়দরাবাদ সানরাইজার্স। শার্দুলের বলটিকে যদি আম্পায়ার নো বল ঘোষণা করতেন সেক্ষেত্রে একটি বাড়তি রান পাওয়ার সঙ্গেই ফ্রি হিট পেতেন ফর্মে থাকা কেন উইলিয়ামস। এবং সেক্ষেত্রে ম্যাচের ফলাফল অন্য রকম হওয়ার সুযোগ ছিল। তাই বিষয়টি নিয়ে সোচ্চার হওয়ার সঙ্গেই ম্যাচ রেফারির কাছে দরবার করেছেন সানরাইজার্স হায়দরাবাদ কর্তৃপক্ষ।

স্পোর্টস ডেস্ক: আইপিএলে বাজে আম্পায়ারিং নিয়ে ক্ষুদ্ধ সানরাইজার্সরা। রোববার চেন্নাই সুপার কিংসদের সঙ্গে ম্যাচে লড়াই করেও ৪ রানে হেরেছে কেন উইলিয়ামসের দল। ম্যাচটিতে একটি নিশ্চিত নো বল দেননি থার্ড আম্পায়ার বিনিত কুলকার্নি। ম্যাচের পর বিষয়টি নিয়ে ম্যাচ রেফারি সুনীল চর্তুবেদীর সঙ্গে দেখা করেন সানরাইজার্স হায়দরাবাদের টিম ম্যানেজার।

রাজীব গান্ধী আন্তর্জাতিক স্টেডিয়ামে প্রথম ব্যাট করে সানরাইজার্সদের সামনে ১৮৩ রানের লক্ষ্য রাখে চেন্নাই। এই রান তাড়া করতে নেমে অধিনায়ক কেন উইলিয়ামস ও ইউসুফ পাঠানের ব্যাটে ১৮ ওভার শেষে ১৫০ রান তোলে সানরাইজার্সরা। আঠারো নম্বর ওভারটিতে বল করতে আসেন চেন্নাই পেসার শার্দুল ঠাকুর।

তার দ্বিতীয় বলটি কেন উইলিয়ামসের বুকের উপরের উচ্চতার হওয়া সত্ত্বে থার্ড আম্পায়ার বিনিত কুলকার্নি ‘নো বল’ ঘোষণা করেননি। সুযোগ থাকলেও ফোর্থ আম্পায়ারের কাছে মত নেওয়ারও প্রয়োজন অনুভব করেননি কুলকার্নি। অথচ টিভি ক্যামেরাই বারবার ধরা পড়ছিল শার্দুলের করা বলটির উচ্চতা ‘নো বলের’ সীমা অতিক্রম করেছে।

চেন্নাইয়ের সঙ্গে ম্যাচটিতে মাত্র চার রানে হেরেছে হায়দরাবাদ সানরাইজার্স। শার্দুলের বলটিকে যদি আম্পায়ার নো বল ঘোষণা করতেন সেক্ষেত্রে একটি বাড়তি রান পাওয়ার সঙ্গেই ফ্রি হিট পেতেন ফর্মে থাকা কেন উইলিয়ামস। এবং সেক্ষেত্রে ম্যাচের ফলাফল অন্য রকম হওয়ার সুযোগ ছিল। তাই বিষয়টি নিয়ে সোচ্চার হওয়ার সঙ্গেই ম্যাচ রেফারির কাছে দরবার করেছেন সানরাইজার্স হায়দরাবাদ কর্তৃপক্ষ।

স্পোর্টস ডেস্ক: আইপিএলে বাজে আম্পায়ারিং নিয়ে ক্ষুদ্ধ সানরাইজার্সরা। রোববার চেন্নাই সুপার কিংসদের সঙ্গে ম্যাচে লড়াই করেও ৪ রানে হেরেছে কেন উইলিয়ামসের দল। ম্যাচটিতে একটি নিশ্চিত নো বল দেননি থার্ড আম্পায়ার বিনিত কুলকার্নি। ম্যাচের পর বিষয়টি নিয়ে ম্যাচ রেফারি সুনীল চর্তুবেদীর সঙ্গে দেখা করেন সানরাইজার্স হায়দরাবাদের টিম ম্যানেজার।

রাজীব গান্ধী আন্তর্জাতিক স্টেডিয়ামে প্রথম ব্যাট করে সানরাইজার্সদের সামনে ১৮৩ রানের লক্ষ্য রাখে চেন্নাই। এই রান তাড়া করতে নেমে অধিনায়ক কেন উইলিয়ামস ও ইউসুফ পাঠানের ব্যাটে ১৮ ওভার শেষে ১৫০ রান তোলে সানরাইজার্সরা। আঠারো নম্বর ওভারটিতে বল করতে আসেন চেন্নাই পেসার শার্দুল ঠাকুর।

তার দ্বিতীয় বলটি কেন উইলিয়ামসের বুকের উপরের উচ্চতার হওয়া সত্ত্বে থার্ড আম্পায়ার বিনিত কুলকার্নি ‘নো বল’ ঘোষণা করেননি। সুযোগ থাকলেও ফোর্থ আম্পায়ারের কাছে মত নেওয়ারও প্রয়োজন অনুভব করেননি কুলকার্নি। অথচ টিভি ক্যামেরাই বারবার ধরা পড়ছিল শার্দুলের করা বলটির উচ্চতা ‘নো বলের’ সীমা অতিক্রম করেছে।

চেন্নাইয়ের সঙ্গে ম্যাচটিতে মাত্র চার রানে হেরেছে হায়দরাবাদ সানরাইজার্স। শার্দুলের বলটিকে যদি আম্পায়ার নো বল ঘোষণা করতেন সেক্ষেত্রে একটি বাড়তি রান পাওয়ার সঙ্গেই ফ্রি হিট পেতেন ফর্মে থাকা কেন উইলিয়ামস। এবং সেক্ষেত্রে ম্যাচের ফলাফল অন্য রকম হওয়ার সুযোগ ছিল। তাই বিষয়টি নিয়ে সোচ্চার হওয়ার সঙ্গেই ম্যাচ রেফারির কাছে দরবার করেছেন সানরাইজার্স হায়দরাবাদ কর্তৃপক্ষ।

গেইল-রাহুলের জোড়া সেঞ্চুরিতে বৃষ্টি আইনে কলকাতাকে হারাল পাঞ্জাব

স্পোর্টস ডেস্ক: ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগে আজ (২১ এপ্রিল) ১৮তম ম্যাচে কলকাতার মাঠ ইডেনে বাংলাদেশ সময় বিকাল সাড়ে চারটায় মুখোমুখি হয় দুই শক্তিশালী দল কলকাতা নাইট রাইডার্স ও কিংস ইলেভেন পাঞ্জাব। টস জিতে কলকাতাকে ব্যাটিংয়ে পাঠানোর সিদ্ধান্ত নেয় কিংস ইলেভেন পাঞ্জাবের অধিনায়ক অশ্বিন।

ব্যাট করতে নেমে নির্ধারিত ২০ ওভারে ৭ উইকেট হারিয়ে ১৯১ রান করে কলকাতা। জয়ের জন্য পাঞ্জাবের প্রয়োজন ১৯২ রান। ১৯২ রানের লক্ষ্য তাড়া করে ব্যাট করতে নেমে দুর্দান্ত শুরু করে পাঞ্জাবের দুই ওপেনার লুকেশ রাহুল এবং ক্রিস গেইল। তবে ৮.২ ওভার ব্যাটিং করার পরই ইডেনে বৃষ্টি নেমে আসে।

তবে বৃষ্টি থামার পর পাঞ্জাবের লক্ষ্য হয়ে দাঁড়ায় ১৩ ওভারে ১২৫ রান। ৮.২ ওভারে তাদের ছিল ৯৬ রান। জবাবে ঝড় তুলেন লুকেশ রাহুল। ২৭ বলে ৯টি চার ও ২টি ছয়ে ৬০ রান করে কুররানকে ক্যাচ দিয়ে নারাইনের বলে ফেরেন তিনি। অন্যদিকে ৩৮ বলে ৫টি চার ও ৬টি ছয়ে ৬২ রানে অপরাজিত ছিলেন গেইল। অন্যদিকে ২ রানে অপরাজিত ছিলেন আগরওয়াল। এরই ফলে ৯ উইকেটে জয় পায় পাঞ্জাব।

স্পোর্টস ডেস্ক: ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগে আজ (২১ এপ্রিল) ১৮তম ম্যাচে কলকাতার মাঠ ইডেনে বাংলাদেশ সময় বিকাল সাড়ে চারটায় মুখোমুখি হয় দুই শক্তিশালী দল কলকাতা নাইট রাইডার্স ও কিংস ইলেভেন পাঞ্জাব। টস জিতে কলকাতাকে ব্যাটিংয়ে পাঠানোর সিদ্ধান্ত নেয় কিংস ইলেভেন পাঞ্জাবের অধিনায়ক অশ্বিন।

ব্যাট করতে নেমে নির্ধারিত ২০ ওভারে ৭ উইকেট হারিয়ে ১৯১ রান করে কলকাতা। জয়ের জন্য পাঞ্জাবের প্রয়োজন ১৯২ রান। ১৯২ রানের লক্ষ্য তাড়া করে ব্যাট করতে নেমে দুর্দান্ত শুরু করে পাঞ্জাবের দুই ওপেনার লুকেশ রাহুল এবং ক্রিস গেইল। তবে ৮.২ ওভার ব্যাটিং করার পরই ইডেনে বৃষ্টি নেমে আসে।

তবে বৃষ্টি থামার পর পাঞ্জাবের লক্ষ্য হয়ে দাঁড়ায় ১৩ ওভারে ১২৫ রান। ৮.২ ওভারে তাদের ছিল ৯৬ রান। জবাবে ঝড় তুলেন লুকেশ রাহুল। ২৭ বলে ৯টি চার ও ২টি ছয়ে ৬০ রান করে কুররানকে ক্যাচ দিয়ে নারাইনের বলে ফেরেন তিনি। অন্যদিকে ৩৮ বলে ৫টি চার ও ৬টি ছয়ে ৬২ রানে অপরাজিত ছিলেন গেইল। অন্যদিকে ২ রানে অপরাজিত ছিলেন আগরওয়াল। এরই ফলে ৯ উইকেটে জয় পায় পাঞ্জাব।

স্পোর্টস ডেস্ক: ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগে আজ (২১ এপ্রিল) ১৮তম ম্যাচে কলকাতার মাঠ ইডেনে বাংলাদেশ সময় বিকাল সাড়ে চারটায় মুখোমুখি হয় দুই শক্তিশালী দল কলকাতা নাইট রাইডার্স ও কিংস ইলেভেন পাঞ্জাব। টস জিতে কলকাতাকে ব্যাটিংয়ে পাঠানোর সিদ্ধান্ত নেয় কিংস ইলেভেন পাঞ্জাবের অধিনায়ক অশ্বিন।

ব্যাট করতে নেমে নির্ধারিত ২০ ওভারে ৭ উইকেট হারিয়ে ১৯১ রান করে কলকাতা। জয়ের জন্য পাঞ্জাবের প্রয়োজন ১৯২ রান। ১৯২ রানের লক্ষ্য তাড়া করে ব্যাট করতে নেমে দুর্দান্ত শুরু করে পাঞ্জাবের দুই ওপেনার লুকেশ রাহুল এবং ক্রিস গেইল। তবে ৮.২ ওভার ব্যাটিং করার পরই ইডেনে বৃষ্টি নেমে আসে।

তবে বৃষ্টি থামার পর পাঞ্জাবের লক্ষ্য হয়ে দাঁড়ায় ১৩ ওভারে ১২৫ রান। ৮.২ ওভারে তাদের ছিল ৯৬ রান। জবাবে ঝড় তুলেন লুকেশ রাহুল। ২৭ বলে ৯টি চার ও ২টি ছয়ে ৬০ রান করে কুররানকে ক্যাচ দিয়ে নারাইনের বলে ফেরেন তিনি। অন্যদিকে ৩৮ বলে ৫টি চার ও ৬টি ছয়ে ৬২ রানে অপরাজিত ছিলেন গেইল। অন্যদিকে ২ রানে অপরাজিত ছিলেন আগরওয়াল। এরই ফলে ৯ উইকেটে জয় পায় পাঞ্জাব।

স্পোর্টস ডেস্ক: ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগে আজ (২১ এপ্রিল) ১৮তম ম্যাচে কলকাতার মাঠ ইডেনে বাংলাদেশ সময় বিকাল সাড়ে চারটায় মুখোমুখি হয় দুই শক্তিশালী দল কলকাতা নাইট রাইডার্স ও কিংস ইলেভেন পাঞ্জাব। টস জিতে কলকাতাকে ব্যাটিংয়ে পাঠানোর সিদ্ধান্ত নেয় কিংস ইলেভেন পাঞ্জাবের অধিনায়ক অশ্বিন।

ব্যাট করতে নেমে নির্ধারিত ২০ ওভারে ৭ উইকেট হারিয়ে ১৯১ রান করে কলকাতা। জয়ের জন্য পাঞ্জাবের প্রয়োজন ১৯২ রান। ১৯২ রানের লক্ষ্য তাড়া করে ব্যাট করতে নেমে দুর্দান্ত শুরু করে পাঞ্জাবের দুই ওপেনার লুকেশ রাহুল এবং ক্রিস গেইল। তবে ৮.২ ওভার ব্যাটিং করার পরই ইডেনে বৃষ্টি নেমে আসে।

তবে বৃষ্টি থামার পর পাঞ্জাবের লক্ষ্য হয়ে দাঁড়ায় ১৩ ওভারে ১২৫ রান। ৮.২ ওভারে তাদের ছিল ৯৬ রান। জবাবে ঝড় তুলেন লুকেশ রাহুল। ২৭ বলে ৯টি চার ও ২টি ছয়ে ৬০ রান করে কুররানকে ক্যাচ দিয়ে নারাইনের বলে ফেরেন তিনি। অন্যদিকে ৩৮ বলে ৫টি চার ও ৬টি ছয়ে ৬২ রানে অপরাজিত ছিলেন গেইল। অন্যদিকে ২ রানে অপরাজিত ছিলেন আগরওয়াল। এরই ফলে ৯ উইকেটে জয় পায় পাঞ্জাব।