মধ্যরাতে পরকীয়ায় মগ্ন পুত্রবধূ, দেখে ফেলল শাশুড়ি!, এরপর যা ঘটলো তা সবাইকে

মধ্যরাতে পরকীয়া। এটা দেখে ফেলায় শাশুড়িকে হত্যা। স্বচোখে পরকীয়া দেখে ফেলায় কাল হলো ওই শাশুড়ির। এজন্য তাকে প্রাণ হারাতে হলো। হ্যাঁ, নওগাঁর রানীনগর উপজেলায় মাঝরাতে পুত্রবধূর পরকীয়া দেখে ফেলায় শাশুড়িকে শ্বাসরোধে হত্যার অভিযোগ উঠেছে।

বুধবার (১৪ ফেব্রুয়ারি) রাতে উপজেলার পারইল ইউনিয়নের বিষা গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনার পর থেকে অভিযুক্ত গৃহবধূ পলাতক রয়েছেন বলে জানা গেছে।

নিহত শাশুড়ি ফরিদা পারভীন (৬৫) ওই গ্রামের মৃত সিরাজুল ইসলামের স্ত্রী।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, ফরিদা পারভীনের পুত্রবধূ দীর্ঘদিন স্বামী বিদেশে থাকায় স্থানীয় এক যুবকের সাথে পরকীয়া সম্পর্কে জড়িয়ে পড়েন। এই ধারাবাহিকতায় বুধবার (১৪ ফেব্রুয়ারি) মাঝরাতে পুত্রবধূ পরকীয়া দেখে ফেলায় ফরিদা পারভীনকে শ্বাসরোধ করে হত্যা করা হয়েছে।

এ ব্যাপারে এলাকাবাসীদের ধারণা, মাঝরাতে শাশুড়ি প্রেমিকের সঙ্গে পুত্রবধূকে হাতেনাতে ধরে ফেলে। এ ঘটনাটি প্রকাশ হওয়ার ভয়ে তাকে শ্বাসরোধে হত্যা করা হয়েছে। তবে, এ বিষয়ে রানীনগর থানার ওসি এএসএম সিদ্দিকুর রহমান জানিয়েছেন, এ ঘটনার খবর পেয়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করা হয়েছে। লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য নওগাঁ সদর হাসপাতালে পাঠানো হবে।

তিনি আরো বলেন, এ ঘটনার পর থেকে নিহতের পুত্রবধূ পলাতক রয়েছেন। তবে অভিযুক্তকে আটকের জোর চেষ্টা চলছে বলেও জানান ওসি এএসএম সিদ্দিকুর রহমান।

মধ্যরাতে পরকীয়া। এটা দেখে ফেলায় শাশুড়িকে হত্যা। স্বচোখে পরকীয়া দেখে ফেলায় কাল হলো ওই শাশুড়ির। এজন্য তাকে প্রাণ হারাতে হলো। হ্যাঁ, নওগাঁর রানীনগর উপজেলায় মাঝরাতে পুত্রবধূর পরকীয়া দেখে ফেলায় শাশুড়িকে শ্বাসরোধে হত্যার অভিযোগ উঠেছে।

বুধবার (১৪ ফেব্রুয়ারি) রাতে উপজেলার পারইল ইউনিয়নের বিষা গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনার পর থেকে অভিযুক্ত গৃহবধূ পলাতক রয়েছেন বলে জানা গেছে।

নিহত শাশুড়ি ফরিদা পারভীন (৬৫) ওই গ্রামের মৃত সিরাজুল ইসলামের স্ত্রী।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, ফরিদা পারভীনের পুত্রবধূ দীর্ঘদিন স্বামী বিদেশে থাকায় স্থানীয় এক যুবকের সাথে পরকীয়া সম্পর্কে জড়িয়ে পড়েন। এই ধারাবাহিকতায় বুধবার (১৪ ফেব্রুয়ারি) মাঝরাতে পুত্রবধূ পরকীয়া দেখে ফেলায় ফরিদা পারভীনকে শ্বাসরোধ করে হত্যা করা হয়েছে।

এ ব্যাপারে এলাকাবাসীদের ধারণা, মাঝরাতে শাশুড়ি প্রেমিকের সঙ্গে পুত্রবধূকে হাতেনাতে ধরে ফেলে। এ ঘটনাটি প্রকাশ হওয়ার ভয়ে তাকে শ্বাসরোধে হত্যা করা হয়েছে। তবে, এ বিষয়ে রানীনগর থানার ওসি এএসএম সিদ্দিকুর রহমান জানিয়েছেন, এ ঘটনার খবর পেয়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করা হয়েছে। লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য নওগাঁ সদর হাসপাতালে পাঠানো হবে।

তিনি আরো বলেন, এ ঘটনার পর থেকে নিহতের পুত্রবধূ পলাতক রয়েছেন। তবে অভিযুক্তকে আটকের জোর চেষ্টা চলছে বলেও জানান ওসি এএসএম সিদ্দিকুর রহমান।

মধ্যরাতে পরকীয়া। এটা দেখে ফেলায় শাশুড়িকে হত্যা। স্বচোখে পরকীয়া দেখে ফেলায় কাল হলো ওই শাশুড়ির। এজন্য তাকে প্রাণ হারাতে হলো। হ্যাঁ, নওগাঁর রানীনগর উপজেলায় মাঝরাতে পুত্রবধূর পরকীয়া দেখে ফেলায় শাশুড়িকে শ্বাসরোধে হত্যার অভিযোগ উঠেছে।

বুধবার (১৪ ফেব্রুয়ারি) রাতে উপজেলার পারইল ইউনিয়নের বিষা গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনার পর থেকে অভিযুক্ত গৃহবধূ পলাতক রয়েছেন বলে জানা গেছে।

নিহত শাশুড়ি ফরিদা পারভীন (৬৫) ওই গ্রামের মৃত সিরাজুল ইসলামের স্ত্রী।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, ফরিদা পারভীনের পুত্রবধূ দীর্ঘদিন স্বামী বিদেশে থাকায় স্থানীয় এক যুবকের সাথে পরকীয়া সম্পর্কে জড়িয়ে পড়েন। এই ধারাবাহিকতায় বুধবার (১৪ ফেব্রুয়ারি) মাঝরাতে পুত্রবধূ পরকীয়া দেখে ফেলায় ফরিদা পারভীনকে শ্বাসরোধ করে হত্যা করা হয়েছে।

এ ব্যাপারে এলাকাবাসীদের ধারণা, মাঝরাতে শাশুড়ি প্রেমিকের সঙ্গে পুত্রবধূকে হাতেনাতে ধরে ফেলে। এ ঘটনাটি প্রকাশ হওয়ার ভয়ে তাকে শ্বাসরোধে হত্যা করা হয়েছে। তবে, এ বিষয়ে রানীনগর থানার ওসি এএসএম সিদ্দিকুর রহমান জানিয়েছেন, এ ঘটনার খবর পেয়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করা হয়েছে। লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য নওগাঁ সদর হাসপাতালে পাঠানো হবে।

তিনি আরো বলেন, এ ঘটনার পর থেকে নিহতের পুত্রবধূ পলাতক রয়েছেন। তবে অভিযুক্তকে আটকের জোর চেষ্টা চলছে বলেও জানান ওসি এএসএম সিদ্দিকুর রহমান।

মধ্যরাতে পরকীয়া। এটা দেখে ফেলায় শাশুড়িকে হত্যা। স্বচোখে পরকীয়া দেখে ফেলায় কাল হলো ওই শাশুড়ির। এজন্য তাকে প্রাণ হারাতে হলো। হ্যাঁ, নওগাঁর রানীনগর উপজেলায় মাঝরাতে পুত্রবধূর পরকীয়া দেখে ফেলায় শাশুড়িকে শ্বাসরোধে হত্যার অভিযোগ উঠেছে।

বুধবার (১৪ ফেব্রুয়ারি) রাতে উপজেলার পারইল ইউনিয়নের বিষা গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনার পর থেকে অভিযুক্ত গৃহবধূ পলাতক রয়েছেন বলে জানা গেছে।

নিহত শাশুড়ি ফরিদা পারভীন (৬৫) ওই গ্রামের মৃত সিরাজুল ইসলামের স্ত্রী।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, ফরিদা পারভীনের পুত্রবধূ দীর্ঘদিন স্বামী বিদেশে থাকায় স্থানীয় এক যুবকের সাথে পরকীয়া সম্পর্কে জড়িয়ে পড়েন। এই ধারাবাহিকতায় বুধবার (১৪ ফেব্রুয়ারি) মাঝরাতে পুত্রবধূ পরকীয়া দেখে ফেলায় ফরিদা পারভীনকে শ্বাসরোধ করে হত্যা করা হয়েছে।

এ ব্যাপারে এলাকাবাসীদের ধারণা, মাঝরাতে শাশুড়ি প্রেমিকের সঙ্গে পুত্রবধূকে হাতেনাতে ধরে ফেলে। এ ঘটনাটি প্রকাশ হওয়ার ভয়ে তাকে শ্বাসরোধে হত্যা করা হয়েছে। তবে, এ বিষয়ে রানীনগর থানার ওসি এএসএম সিদ্দিকুর রহমান জানিয়েছেন, এ ঘটনার খবর পেয়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করা হয়েছে। লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য নওগাঁ সদর হাসপাতালে পাঠানো হবে।

তিনি আরো বলেন, এ ঘটনার পর থেকে নিহতের পুত্রবধূ পলাতক রয়েছেন। তবে অভিযুক্তকে আটকের জোর চেষ্টা চলছে বলেও জানান ওসি এএসএম সিদ্দিকুর রহমান।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *