বাংলাদেশেকে ছোট করে হাথুরুসিংহে সাংবাদিকদের যা বললেন

মিরপুরে বাংলাদেশ ও শ্রীলঙ্কার মধ্যকার টেস্ট ম্যাচটি শেষ হয়েছিল আড়াই দিনে। তার আগে এই ভেন্যুতে অনুষ্ঠিত ত্রিদেশীয় ওয়ানডে সিরিজেও রান করতে ব্যাটসম্যানদের ঘাম ঝরাতে হয়েছে। অথচ আজ এই মিরপুরেই ৩৮৭ রানের একটি টি-টোয়েন্টি ম্যাচ দেখল দর্শকরা।

এদিন ম্যাচ শেষে দেয়া সাক্ষাৎকারে শ্রীলঙ্কা দলের অধিনায়ক দিনেশ চান্দিমাল বলেন, তারা ভাবতেই পারেননি এতো ভালো উইকেট হবে।

দিনেশ চান্দিমমাল বলেন, ‘আমরা ভাবতেও পারিনি এতো ভালো উইকেট হবে। টস হেরে ভালোই হয়েছে। ব্যাটসম্যানদের প্রতি কৃতজ্ঞতা। তারা অসাধারণ ক্রিকেট খেলেছে। ১৯৪ রান তাড়া করে জেতাটা মোটেও সহজ কাজ নয়। ম্যাচ শুরু আগে আমাদের পরিকল্পনা ছিল বাঁ-হাতি-ডানহাতি কম্বিনেশন করা। একইসাথে আমরা পাওয়ার হিটার খেলানোর চেষ্টা করেছি। এটাই ছিল আমাদের কৌঁশলটা ছিল। আনন্দিত যে পরিকল্পনা কাজ করেছে। কুসল, গুনাথিলাকা, থিসারা, দাসুন চমৎকার খেলেছে। আমরা সবাই জানি, বাংলাদেশ ঘরের মাঠে শক্তিশালী দল। সুতরাং, আমরা তাদের কখনোই খাটো করে দেখিনি।’

এদিন টস জিতে ব্যাট করতে নেমে নির্ধারিত ২০ ওভারে পাঁচ উইকেট হারিয়ে ১৯৩ রান সংগ্রহ করে বাংলাদেশ। পরে শ্রীলঙ্কা ব্যাট করতে নেমে ১৬.৪ ওভারে চার উইকেট হারিয়ে জয় তুলে নেয়। এই ম্যাচের মাধ্যমে বাংলাদেশের চার ক্রিকেটারের আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে অভিষেক হয়েছে। তারা হলেন আফিফ হোসেন, আরিফুল হক, নাজমুল ইসলাম অপু ও জাকির হাসান।

ম্যাচ শেষে সংবাদ সম্মেলনে হতাশার সুরে মাহমুদউল্লাহ বললেন, ‘ভাল উইকেট ছিল। ব্যাটসম্যানরা তাদের কাজটা ভালই করেছে। স্কোরটা দুইশ’র উপরে হলে আরও ভাল হতো। তারপরও বলবো জয়ের জন্য এটা ভাল সংগ্রহ ছিল। বোলাররা ভাল লেংথে বল করতে পারেনি। বলবো না তারা লাইনে করেনি, তবে লেংথ ঠিক ছিল না। ভাল বোলিং করতে পারেনি।’

‘নাজমুল অপু কিছুটা ভাল বল করেছে। এছাড়া কেউ ভাল বল করেনি। আমাদের এসব নিয়ে বসতে হবে। কাকে কোন সময় বোলিং আক্রমণে আনব তা নিয়েও আলোচনার ব্যাপার রয়েছে।’ যোগ করেন মাহমুদউল্লাহ।

ত্রিদেশীয় টুর্নামেন্ট, টেস্ট সিরিজ জয়ের পর দুই ম্যাচের টি-টুয়েন্টি সিরিজেও ১-০তে এগিয়ে গেছে শ্রীলঙ্কা। অথচ গত বছর শ্রীলঙ্কা সফরে গিয়ে বাংলাদেশ সমানে-সমান প্রতিরোধ গড়েছিল। টেস্ট (১-১), ওয়ানডে (১-১), টি-টুয়েন্টি সিরিজ (১-১) ড্র করেছিল সব সিরিজেই। দেশের মাটিতে সেই দলটাই খেই হারিয়ে বসেছে।

শ্রীলঙ্কা সফরের স্মৃতি মনে করিয়ে দিলে মাহমুদউল্লাহ টেনে আনলেন বোলিংয়ের দুর্দশাগ্রস্ত চিত্রটাই, ‘আমরা ভাল বোলিং করতে পারছি না। এখানেই পার্থক্য হয়ে যাচ্ছে।’

রীলঙ্কার বিপক্ষে আজ ১৯৩ রান করেও হেরে গেছে বাংলাদেশ। দুই ম্যাচ টি-টোয়েন্টি সিরিজের প্রথম ম্যাচটি লঙ্কানরা জিতে নিয়েছে ছয় উইকেটে। আগামী ১৮ ফেব্রুয়ারি সিলেটে অনুষ্ঠিত হবে সিরিজের শেষ ম্যাচ। এদিন ম্যাচ শেষে দেয়া সাক্ষাৎকারে টাইগার দলপতি মাহমদুউল্লাহ রিয়াদ সিলেটে ভালো করার প্রত্যাশা ব্যক্ত করেন।

মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ বলেন, ‘আমি মনে করি আমরা ১০-১৫ রান কম করেছিলাম। আমাদের স্কোর ২০০ রানের উপরে হওয়া উচিৎ ছিল। মুশি তিন নম্বর পজিশনে ব্যাট করেছে। সৌম্য ও জাকির ভালো শুরু করেছিল। শ্রীলঙ্কার ব্যাটসম্যানদের প্রতি কৃতজ্ঞতা। আমরা তাদের উপর চাপ সৃষ্টি করতে পারিনি। ব্যাটিং লাইন আপে আমাদের গভীরতা ছিল। বোলিংয়ে আমরা ভালো করতে পারিনি। আশা করি, সিলেটে আমরা উপরে থেকেই মৌসুম শেষ করব।’

এদিন টস জিতে ব্যাট করতে নেমে নির্ধারিত ২০ ওভারে পাঁচ উইকেট হারিয়ে ১৯৩ রান সংগ্রহ করে বাংলাদেশ। পরে শ্রীলঙ্কা ব্যাট করতে নেমে ১৬.৪ ওভারে চার উইকেট হারিয়ে জয় তুলে নেয়। এই ম্যাচের মাধ্যমে বাংলাদেশের চার ক্রিকেটারের আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে অভিষেক হয়েছে। তারা হলেন আফিফ হোসেন, আরিফুল হক, নাজমুল ইসলাম অপু ও জাকির হাসান।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *