বড় পর্দায় নগ্ন হয়ে অভিনয় করেছেন যেসব ভারতীয় অভিনেত্রীরা…

প্রিয়ঙ্কা বোস (‘গাঙ্গোর’, ২০১০): বাংলা, সাঁওতালি ও ইংরেজি ভাষায় নির্মিত এই ছবির পরিচালক ছিলেন ইতালীয় পরিচালক ইতালো স্পিনেলি। একসাঁওতালি মহিলা তাঁর শিশুকে যখন স্তন্যপান করাচ্ছে, তখন তার ছবি তোলে এক চিত্রসাংবাদিক। সেই ছবিকে ঘিরে আবর্তিত হয় ফিল্মের কাহিনি। সেই স্তন্যদানের দৃশ্যে সাঁওতালি মা-এর ভূমিকায় অভিনয় করেন প্রিয়ঙ্কা বোস। এই দৃশ্যের প্রয়োজনে ক্যামেরার সামনে ঊর্ধ্বাঙ্গ উন্মোচন করেছিলেন তিনি।

স্বস্তিকা মুখোপাধ্যায় (‘ডিটেকটিভ ব্যোমকেশ বক্সি’, ২০১৫): ‘ডিটেকটিভ ব্যোমকেশ বক্সি’ ছবিতে প্রায় নগ্ন হয়ে অভিনয় করেছিলেন স্বস্তিকা।

শুভ্রা বসু (‘পরম্পর’, ২০০৩):আর্ট কলেজে ন্যুড মডেল হিসেবে এক সময়ে কাজ করেছিলেন অমলিনা। বয়সকালে অর্থাভাবে নিজের পুত্রবধূ বুলিকেও একই পেশার দিকে ঠেলে দেন তিনি। এই ঘটনা নিয়েই গড়ে উঠেছে প্রণবকুমার দাশ পরিচালিত এই ছবি। বুলির চরিত্রে অভিনয় করেছিলেন শুভ্রা বসু। ফিল্মের প্রয়োজনে একটি দৃশ্যে সম্পূর্ণ নগ্ন হয়েছিলেন শুভ্রা।

পাওলি দাম (‘ছত্রাক’, ২০১১): এই ফিল্মের দৃশ্যটি ইতিমধ্যেই ইন্টারনেটের দৌলতে অনেকেরই দেখা হয়ে গিয়েছে। এই দৃশ্যেও পাওলির সঙ্গী ছিলেন অনুব্রত। শ্রীলঙ্কান পরিচালক বিমুক্তি জয়সুন্দর পরিচালিত ফিল্মটির সেই বিখ্যাত দৃশ্যটিতে পাওলির সম্মুখ-নগ্নতা ধরা পড়েছিল।

ঋ (‘গান্ডু’, ২০১০):তালিকায় দ্বিতীয় নামটি বাঙালি অভিনেত্রী ঋ-এর। কিউ পরিচালিত এই ছবিতে সহ-অভিনেতা অনুব্রতর সঙ্গে একটি শয্যাদৃশ্যে সম্পূর্ণ নগ্ন হয়েছিলেন ঋ। তাঁর গোপনতম অঙ্গও ধরা পড়েছিল ক্যামেরায়। এর পরে ‘কসমিক সেক্স’ নামের আর একটি ফিল্মেও নগ্ন হয়ে অভিনয় করেছিলেন ঋ।

সীমা রহমানি (‘সিনস’, ২০০৫): বিনোদ পাণ্ডে পরিচালিত ‘সিনস’ নামের ছবিটি এক ক্যাথলিক পাদ্রির কাহিনি, যিনি একটি অল্পবয়সি মেয়ের সঙ্গে প্রণয়-সম্পর্কে লিপ্ত হয়ে পড়েন। ফিল্মের একটি অংশে শাইনি আহুজার সঙ্গে ভালবাসার দৃশ্যে সীমা রহমানি সম্পূর্ণ নগ্ন হন। তাঁর শরীরের সামনের অংশও সম্পূর্ণ ধরা পড়ে ক্যামেরায়। ক্যাথলিক সমাজ এই ফিল্মের বিরুদ্ধে তীব্র প্রতিবাদ জানায়।

দীপা শাহি (‘মায়া মেমসাব’, ১৯৯৩): কেতন মেহতা পরিচালিত এই ছবির একটি শয্যাদৃশ্যে শাহরুখ খানের সঙ্গে নগ্ন হয়েছিলেন দীপা। ছবিটি ছিল ‘মাদাম বোভারি’র একটি অক্ষম ভারতীয় সংস্করণ।

সিমি গ্রেবাল (‘সিদ্ধার্থ’, ১৯৭০): হারম্যান হেসের উপন্যাস অবলম্বনে কনরাড রুকস পরিচালনা করেন ইংরেজি ভাষার এই ছবি। এর একটি দৃশ্যে সম্পূর্ণ নগ্ন হয়ে অভিনয় করেছিলেন সিমি। সঙ্গে ছিলেন শশি কপুর। দৃশ্যটি স্বভাবতই যথেষ্ট বিতর্ক তৈরি করে।

রাধিকা আপ্তে (‘পার্চড’, ২০১৬): সাম্প্রতিক ছবি লীনা যাদব পরিচালিত ‘পার্চড’ ছবিতে তাঁকে নগ্ন অবস্থায় দেখা গিয়েছিল। ছবিতে তাঁর অভিনয় যথেষ্ট প্রশংসনীয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *