শাকিব-অপুর বিচ্ছেদ নিয়ে যা বললেন শাকিব খান

বিনোদন ডেস্ক : ‘যখন হবে তখন তো সবাই জানতেই পারবে। এ নিয়ে এখন কথা বলার কিছু নাই।’ বিচ্ছেদের প্রশ্ন করলে এমনটাই বললেন জনপ্রিয় নায়ক শাকিব খান।

ঢাকাই চলচ্চিত্রের এ সময়ের সবচেয়ে জনপ্রিয় ও আলোচিত নায়ক শাকিব খানের কাছে প্রশ্ন ছিল, আপনারা (শাকিব খান ও অপু বিশ্বাস) নাকি বিচ্ছেদে যাচ্ছেন? এ প্রশ্নের উত্তরেই জনপ্রিয় এ নায়ক সরাসরি ‘হ্যাঁ বা ‘না’ উত্তর না দিয়ে বরং তাদের বিচ্ছেদের গুঞ্জনের বিষয়ে এমনটিই বললেন।

আজ শনিবার বিকাল থেকে সন্ধ্যার কিছুটা আগ পর্যন্ত এফডিসিতে একটি ছবির শুটিং করছিলেন শাকিব খান। শুটিংয়ের ফাঁকে তাদের (শাকিব-অপু) বিচ্ছেদের গুঞ্জনের বিষয়টি নিয়ে কথা বলেন তিনি।

কারণ অতি উৎসাহীরা আতশি কাচ দিয়ে তাদের সম্পর্কের ফাটল খুঁজে বেড়াচ্ছেন কিছুদিন ধরে। ফলে গত কয়েকদিন ধরে ফের শাকিব-অপুর বিচ্ছেদের গুঞ্জনের বিষয়টি আলোচনায় আসে। অন্যদিকে শাকিব খান তাদের বিচ্ছেদের বিষয়টি নিয়ে একজন আইনজীবীর সঙ্গে কথাও বলেছেন বলে সিনেমা ইন্ডাস্ট্রিতে গুঞ্জনের ডালপালা মেলেছে।

আর একই বিষয়ে কথা বলার জন্য ৪ নভেম্বর বিকাল থেকে মোবাইল ফোনে বহুবার চেষ্টা করার পরে সন্ধ্যা ৬টার কিছুটা আগে পাওয়া গেল শাকিব খানের স্ত্রী ও ঢাকাই ছবির আলোচিত চিত্রনায়িকা অপু বিশ্বাসকে। সে সময় অপুকেও তাদের (শাকিব-অপু) বিচ্ছেদের গুঞ্জনের বিষয়টি নিয়ে একই প্রশ্ন করে।

অপু বিশ্বাস বলেন, ‘এ বিষয়টি নিয়ে আমি কোনো কথাই বলতে চাই না। আর কথা বাড়াতেও চাই না। এ নিয়ে আমার কোন মাথা ব্যথা নেই। আর মাথা ব্যথা না থাকলে সেটি নিয়ে তো কোনো কথাও বলার প্রয়োজন বোধ করারও বিষয় নাই। যা হওয়ার হচ্ছে, হোক।’

শাকিব খান এবং অপু বিশ্বাস তাদের বিয়ের খবর গত নয় বছর ধরে গোপন রেখেছিলেন। এরপর এ বছরের ১০ এপ্রিল (সোমবার) বিকেল ৪টায় দেশের একটি বেসরকারি টিভি চ্যানেলে সাক্ষাৎকার দিতে এসে, এক প্রকার হাটে হাড়ি ভেঙে দেন অপু। এতদিন অপু বিশ্বাস গোপনে আগলে রেখেছিলেন শাকিব খানের ঔরসজাত সন্তানকে।

কলকাতার একটি ক্লিনিকে ২০১৬ সালের ২৭ সেপ্টেম্বর জন্ম হয় শাকিব-অপুর ছেলে আব্রাহাম খান জয়ের। সে সময় অপু বিশ্বাসের সিজারও করা হয়। এ খবর প্রকাশের পর থেকেই শাকিবের সঙ্গে অপু’র মান-অভিমান চলছেই। একটা সময় গিয়ে এ নিয়ে শাকিবের সঙ্গে অপুর দূরত্ব তৈরি হয়। এখন ছেলেকে নিয়ে রাজধানীর নিকেতনের বাসায় অপু তার পরিবারের সঙ্গে শাকিবকে ছাড়াই আছেন। প্রিয়

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *